আদালতপাড়া সরগরম

0
36

(দিনাজপুর২৪.কম) ঢাকা: চাঞ্চল্যকর মামলার রায়, তারকাদের আনাগোনা, আলোচিত মামলার বিচার কার্যক্রম— সবকিছু মিলিয়ে বিদায়ী ২০২১ সালের আদালতপাড়া ছিল আলোচনার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুতে। বছরের মাঝামাঝি সময়টায় তেমন কোনো বড় মামলার খবর না থাকলেও শুরু ও শেষের সময়টায় আদালতের দিকেই দৃষ্টি নিবদ্ধ ছিল মানুষের।

এ বছর বেশ কয়েকটি আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর মামলার রায় রয়েছে। সাজা পেয়েছেন সরকারি কয়েকজন কর্মকর্তাসহ আলোচিতরা। আরও কয়েকটি আলোচিত মামলার বিচারকাজ শুরু হয়েছে এ বছর। এর বাইরে বিনোদন অঙ্গনের বেশ কয়েকজন তারকাকেই গ্রেফতার হয়ে এ বছর আসতে হয়েছে আদালতে।

আইনজীবীসহ আদালতপাড়ার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০২১ সালে যেভাবে বিচারিক আদালতের গোটা দেশে আলোচনার তুঙ্গে উঠে এসেছিল, এমন নজির এর আগে এক বছরে ততটা দেখা যায়নি।

অভিজিৎ হত্যা মামলার রায়: বছরের শুরুর দিকে লেখক ও মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ রায় হত্যা মামলায় গত ১৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সামরিক শাখার প্রধানসহ পাঁচ আসামির মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন। প্রত্যেক আসামিকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। এছাড়া একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

আবরার হত্যা মামলার রায়: বছরের শেষের দিকে ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামানের আদালত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করেন। ৮ ডিসেম্বর ঘোষণা করা এই রায়ে ২০ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড এবং আরও ৫ আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত।

দণ্ডিত সাবেক প্রধান বিচারপতি: সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে চার কোটি টাকা ঋণ দুর্নীতির মামলার রায় নিয়ে আদালতের প্রতি দৃষ্টি ছিল মানুষের। গত ৯ নভেম্বর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪-এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালত এই মামলায় সাবেক প্রধান বিচারপতিকে দুই ধারায় মোট ১১ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন। একটি ধারায় সাত বছর ও অন্যটিতে চার বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হলেও একসঙ্গে চলমান থাকায় তাকে সাত বছর কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। মামলার বাকি ১০ আসামির মধ্যে আট জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও দুই আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

আমিনবাজারে ৬ ছাত্রকে হত্যা মামলার রায়: ২০১১ সালের ১৭ জুলাই শবে বরাতের রাতে সাভারের আমিনবাজারে শবে বরাতের রাতে ছয় কলেজ ছাত্রকে ডাকাত সাজিয়ে পিটিয়ে হত্যার মামলায় গত ২ ডিসেম্বর ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ইসমত জাহানের আদালত। একই মামলায় আরও ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। চাঞ্চল্যকর এই মামলায় খালাস পেয়েছেন ২৫ আসামি। মামলা চলাকালীন মারা যাওয়ায় তিন আসামিকে আগেই অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল।

জুলহাস-তনয় হত্যা মামলায় ৬ জনের ফাঁসি: রাজধানীর কলাবাগানে ইউএসএইড কর্মকর্তা জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব তনয় হত্যা মামলায় গত ৩১ আগস্ট সেনাবাহিনীর চাকরিচ্যুত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়া ওরফে মেজর জিয়াসহ ৬ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ঢাকার সন্ত্রাস বিরোধী ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান এই মামলায় দুই আসামিকে খালাস দিয়েছেন।

বাবরের ৮ বছরের কারাদণ্ড: একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের মামলায় হক ৮ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। দুর্নীতি দমন কমিশন আইনের মামলায় পৃথক দুই ধারায় ১২ অক্টোবর ঢাকার ৭ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের মো. শহিদুল ইসলামের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ে দুদক আইনের একটি ধারায় ৩ বছর ও আরেকটি ধারায় ৫ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বাবরকে। পাশাপাশি ১০ হাজার টাকার অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও তিন মাস কারাভোগের আদেশ হয়েছে। আর দুই ধারার সাজা একসঙ্গে চলমান থাকায় এই মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করবেন সাবেক এই স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

গাড়িচালকের ৩০ বছরের কারাদণ্ড: বিপুল সম্পদের মালিক স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক আব্দুল মালেক গ্রেফতারের পর থেকেই ছিলেন আলোচনায়। ঢাকার ৪ নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রবিউল আলমের আদালত গত ২০ সেপ্টেম্বর তাকে অস্ত্র আইনের মামলার দুই ধারায় ১৫ বছর করে ৩০ বছর কারাদণ্ড দেন। দু’টি সাজা একসঙ্গে চলায় তাকে ১৫ বছর সাজা খাটতে হবে।

ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের ডিএমডির কারাদণ্ড: এক কোটি ৬১ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর (ডিএমডি) এবং ছয় জনকে পাঁচ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গত ২৮ জানুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক শহিদুল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন। আত্মসাৎ করা এক কোটি ৬১ লাখ ৭১ হাজার ৫৩২ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিমানের ৩ কর্মকর্তার কারাদণ্ড: ২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৬২ কেজি সোনার বার উদ্ধরের ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় গত ২৮ জানুয়ারি বিমানের তিন কর্মকর্তাকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন ষষ্ঠ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফাতিমা ইমরোজ ক্ষণিকার আদালত। বাংলাদেশ বিমানের এয়ারক্রাফট মেকানিক আনোয়ারুল হাসান, আবু সালেহ ও আক্তারুজ্জামানকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাস কারাভোগের আদেশও দেওয়া হয়।

মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে বাবার যাবজ্জীবন: রাজধানীর হাজারীবাগ থানায় সাত বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণ অভিযোগে দায়ের করা মামলায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি বাবা মো. আক্তার সরদারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৫-এর বিচারক সামছুন্নাহারের আদালত। পাশাপাশি তাকে আরও ৫০ হাজার টাকার অর্থদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। অর্থদণ্ড না দিলে আরও ৬ মাস কারাভোগ করতে হবে তাকে।

স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা, স্বামীর যাবজ্জীবন: ২০০৫ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বিহারী পল্লিতে প্রথম স্ত্রী ফারজানাকে শরীরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে হত্যার মামলায় স্বামী ইসলাম সৃষ্টিকে গত ২৫ মার্চ যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মাকসুদা পারভীন। মামলার বাকি তিন আসামি বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

কাঠগড়ায় চলচ্চিত্র নায়িকা, মডেলরা: এ বছরের অন্যতম আলোচিত মুখ ছিলেন চ্চিত্রনায়িকা পরীমনি। ব্যবসায়ী ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদের বিরুদ্ধে ঢাকা বোট ক্লাবে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে প্রথম আলোচনায় আসেন তিনি। পরে গত ৪ আগস্ট তার বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। সেদিন তাকে আটক করে র‌্যাব সদর দফতরে নেওয়া হয়। বাসা থেকে উদ্ধার করা হয় বিদেশি মদসহ বিভিন্ন ধরনের মাদক। পরদিন তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করা হয়। এরপর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে কয়েক দফায় রিমান্ডে নেয় পুলিশ। শেষ পর্যন্ত উচ্চ আদালতের হস্তক্ষেপে ৩১ আগস্ট জামিন পান পরীমনি। পরদিন কারামুক্ত হন। এখনো নিয়মিতই মামলায় হাজিরা দিচ্ছেন তিনি।

পরীমনি আটক হওয়ার তিন দিন আগেই গত ১ আগস্ট রাতে মোহাম্মদপুরের বাবর রোডের বাসা থেকে মাদকসহ গ্রেফতার হন মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌ ওরফে মৌ আক্তার। কয়েক দফা রিমান্ডে শেষে বর্তমানে এই দুই মডেল কারাগারে রয়েছেন।

গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে হাতিরঝিল থানার উলন রোডের একটি বাসা থেকে গত ৩১ জুলাই আটক করা হয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী সিমন হাসান একাকে। প্রায় মাসখানেক কারাভোগের পরে গত ২২ আগস্ট ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদের আদালত দশ হাজার টাকার মুচলেকায় তাকে জামিন দেন। বর্তমানে তিনি জামিনে রয়েছেন।

গত ২৭ জুন মডেল নাদিয়া ও পরিচালক সুজনকে সাইবার পর্নোগ্রাফি ও ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকে পাওয়া ডিভাইসে ব্ল্যাকমেইল করা আইডি ও ভিডিও উদ্ধার করা হয়।

সৌদি আরব প্রবাসী এক ব্যক্তির দায়ের করা এক মামলায় ১১ মার্চ লালমাটিয়া এলাকা থেকে মডেল ও রানআউট সিনেমার নায়িকা রোমানা ইসলাম স্বর্ণাকে (৪০) গ্রেফতার করে পুলিশ। অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মোহাম্মদপুর থানায় প্রতারণার মামলাটি করেন সৌদি আরব প্রবাসী জুয়েল। বর্তমানে তিনি জামিনে রয়েছেন।

এদিকে, এ বছর আদালতপাড়ায় আলোচিত আরেক ঘটনার কেন্দ্রে ছিলেন ক্রিকেটার নাসির ও তামিমা সুলতানা তাম্মি। অভিযোগ, প্রথম স্বামী রাকিবকে ডিভোর্স না দিয়েই তামিমা বিয়ে করেছেন নাসিরকে। এ অভিযোগে দায়ের করা মামলায় আদালতে যেতে হয় নাসির, তাম্মি ও তাম্মির মা সুমি আক্তারকে।

এদিকে, ব্যান্ড সংগীতের গুরুখ্যাত জেমসও আদালত প্রাঙ্গণে হাজির হয়ে চমকে দেন সবাইকে। টেলিকম অপারেটর বাংলালিংকের বিরুদ্ধে কপিরাইটভঙ্গের অভিযোগে মামলা করতে যান তিনি। আদালত তাকে প্রথমে থানায় যোগাযোগ করতে বলেন। পরে পুলিশের নির্দেশনা নিয়ে ফের আদালতে গিয়ে এই মামলা করেন জেমস।

আলোচিত কিছু মামলার বিচার শুরু: বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের অন্যতম সহযোগী যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন ও তার স্ত্রী আয়েশা আক্তার সোমার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু হয়েছে গত ৯ ডিসেম্বর। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭-এর বিচারক শহিদুল ইসলাম তাদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কৃত শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী বিরুদ্ধেও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের কর মামলায় বিচার শুরু হয়েছে এ বছর। গত ৩০ নভেম্বর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩-এর বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইনের আদালত তাদের অব্যাহতির আবেদন নামঞ্জুর করে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িত মতিঝিল থানায় দায়ের করা মানি লন্ডারিং আইনের মামলায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডের ডিরেক্টর ইনচার্জ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক পরিচালক (বিসিবি) লোকমান হোসেন ভূঁইয়া, বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের সহযোগী এনামুল হক আরমানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়েছে এ বছর। আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১০-এর বিচারক নজরুল ইসলাম গত ২১ নভেম্বর অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন।

নকশা জালিয়াতির মামলায় রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারের ভবন মালিক সৈয়দ মো. হোসাইন ইমাম ফারুকসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধেও অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু হয়েছে। গত ১৫ নভেম্বর ঢাকার বিভাগীয় স্পেশাল জজ সৈয়দ কামাল হোসেন আদালত এই আদেশ দেন। একই ঘটনায় দায়ের করা আরেক মামলাতেও ভবন মালিক ফারুকসহ চার জনের বিরুদ্ধে ব্চিার শুরু হয়েছে গত ১৮ অক্টোবর। ঢাকার বিভাগীয় স্পেশাল জজ সৈয়দ কামাল হোসেনের আদালত এই মামলার অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন।

রাজধানীর বাড্ডায় ছেলেধরা গুজবে গণপিটুনিতে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলায় ১৩ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু হয়েছে। ১ এপ্রিল ঢাকার ষষ্ঠ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফাতিমা ইমরোজ ক্ষণিকা আসামিদের অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে এ আদেশ দেন।

এ ছাড়া আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান ও তার স্ত্রী হাসিনা সুলতানার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের পৃথক দুই মামলায় অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরু হয়েছে। ২৬ সেপ্টেম্বর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩-এর বিচারক মোহাম্মদ আলী হোসাইন এই মামলায় অভিযোগ গঠন করেন।

ব্যতিক্রমী সাজা: ব্যবসায়িক লেনদেন সংক্রান্ত আলোচনার জেরে দেওয়ান প্রোপার্টিজ লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাকসুদ দেওয়ান ছিদ্দিককে ভয়ভীতি দেখানোর মামলায় ২২ মার্চ তিন আসামিকে শাস্তি হিসেবে ভালো আচরণ করা ও বৃক্ষরোপণের সাজা দেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মাহমুদা আক্তার। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন— দেওয়ান প্রোপার্টিজ লি.-এর আরেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক জুয়েল হোসেন দেওয়ান, মানিক হোসেন দেওয়ান ও মুজাহিদুল ইসলাম।

গত ৯ নভেম্বর একই বিচার মাদকের পৃথক ৫ মামলায় পাঁচ আসামির জন্যও ব্যতিক্রমী সাজা দেন। আদেশে বলা হয়, পরবর্তী ছয় মাসের জন্য সপ্তাহে একদিন ঢাকা দক্ষিণ বা উত্তর সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধীনে পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালন করতে হবে এই পাঁচ আসামিকে। এর সঙ্গে অবশ্য আরও চার শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়— প্রবেশনকালীন আসামিরা কোনো অপরাধে জড়িয়ে পড়বেন না বা একই অপরাধ আর করবেন না; ধর্মীয় আচরণবিধি ও অনুশাসন মেনে চলবেন; অসৎ ও খারাপ সঙ্গ ত্যাগ করতে হবে; এবং মাদকদ্রব্য গ্রহণ থেকে বিরত থাকতে হবে।

এদিকে, এক হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলাসহ দুইটি মাদক মামলায় মাত্র তিন কার্যদিবসের মধ্যে রায় ঘোষণা করেন ঢাকার তৃতীয় অ্যাডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (এসিএমএম) মো. তোফাজ্জল হোসেনের আদালত। গত ১ নভেম্বর দ্রুততম সময়ে ঘোষণা করা এ রায়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন— বান্দরবান জেলার আলীকদমের বাসিন্দা মংখু মারমা (২৫), কক্সবাজার উখিয়ার বাসিন্দা মো. ফরিদ আলম (২০) ও গাইবান্ধার পলাশ বাড়ীর বাসিন্দা মো. জাফর শেখ।

মামলা খারিজ: এ বছর বেশকিছু মামলার আবেদন খারিজও হয়েছে বিচারিক আদালতে। এর মধ্যে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা রহমান সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ, অশ্লীল ভাষায় নারী বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের অভিযোগে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানসহ দু’জনের বিরুদ্ধে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে দায়ের করা মামলা খারিজের আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল। গত ১২ ডিসেম্বর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি দায়ের করেছিলেন ঢাকা বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক ফারুকী। পরদিন ১৩ ডিসেম্বর ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের
আদালত মামলাটি খারিজের আদেশ দেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পিএস, র‌্যাব-৪-এর এএসপিসহ ৪৩ জনের বিরুদ্ধে ডাকাতি, দস্যুতা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে দায়ের করা মামলার আবেদনও খারিজ করে দেন আদালত। মামলাটি গ্রহণ করার মতো কোনো উপাদান না থাকায় গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

এ ছাড়া ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বিরুদ্ধেও প্রতারণার অভিযোগে দায়ের করা একটি মামলা খারিজ করেছেন আদালত। ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত গত ১৯ অক্টোবর এ আদেশ দেন। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here