আবারও বাড়ছে সুরমার পানি : অনেক অঞ্চলে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা

0
21
(দিনাজপুর২৪.কম) সিলেট অঞ্চলের সব নদ-নদীর পানি গত রোববার (২৬ জুন) বিপদসীমার নিচে নেমে গেছে। তবে অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে মঙ্গলবার (২৮ জুন) আবারও বাড়তে শুরু করেছে সুরমা নদীর পানি। এছাড়া বাড়ছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী খাসিয়ামারা ও চেলা নদীর পানিও। এতে করে পানি নেমে যাওয়া এলাকাগুলো নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে। তবে তিস্তা, যমুনা, পদ্মা ও কুশিয়ারা নদীর পানি কমা অব্যাহত আছে।
মঙ্গলবার (২৮ জুন) আবহাওয়া অধিদপ্তর এ তথ্য জানায়।
এদিন দুপুর ১২টার দিকে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ২৪ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়। অথচ গত সোমবার ৩০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল।
বিষয়টি নিশ্চত করে দোয়ারাবাজার উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী সাফিউল ইসলাম জানান, ভারতের মেঘালয়ে নতুন কবে ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে সীমান্ত নদী দিয়ে ঢলের পানি নামছে। এতে করে সুরমা নদীর পানি বাড়ছে। এছাড়া খাসিয়ামারা ও চেলা নদীতে পানিও বেড়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ২৪ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়।
আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়. বুধবার সন্ধা ৬টা পর্যন্ত দেশের কোথাও হালকা, কোথাও ভারি বৃষ্টি হতে পারে। আবার কোনো কোনো স্থান থাকতে পারে বৃষ্টিহীন।
এদিন আবহাওয়াবিদ খোন্দকার হাফিজুর রহমান জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে বুধবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়, ঢাকা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।
তিনি বলেন, এসময়ে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। আগামী তিনদিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে।
মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, দিনাজপুর, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। -ডেস্ক রিপোর্ট
মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here