ইউপি চেয়ারম্যানের পিটুনিতে দোকান কর্মচারী নিহত, গ্রেপ্তার ৪

0
38
ছবি-সংগ্রহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) ফেনীর পরশুরামের মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদের ‘চেয়ারম্যান নুরুজ্জমান ভুট্টোর পিটুনিতে’ শাহীন চৌধুরী নামের এক দোকান কর্মচারী নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের উত্তর বাজার এলাকার দারুল উলুম মাদ্রাসা সংলগ্ন সাবেক মেম্বার বাবুলের দোকানে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় ইতোমধ্যে চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পরশুরাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. খালেদ হোসেন।

নিহত শাহীন চৌধুরী পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের উত্তর বাজার দক্ষিণ কাউতলী গ্রামের চৌধুরী বাড়ির আবদুর রহমান চৌধুরীর ছেলে এবং একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী ছিলো।

নিহতের স্ত্রী ফিরোজা আক্তার বলেন, শাহীন চৌধুরী সাবেক ইউপি সদস্য বাবুলের ঠিকদারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। তার দোকান থেকে চেয়ারম্যান ভুট্টুর ঘনিষ্ঠ সহযোগী হাশেম সাত লাখ টাকার মালামাল বাকিতে নিয়ে যান। একপর্যায় শাহীন চৌধুরী পাওনা টাকা ফেরত চাওয়ায় হাসেম ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ভুট্টুকে ঘটনাটি জানান। ঘটনা শুনে ভুট্টু চেয়ারম্যান তার সহযোগী মোহাম্মদ সোহাগ, আহাদ, শারীফসহ ৮/১০ জন নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে শাহীন চৌধুরীকে বেধড়ক মারধর করেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পরশুরাম থানার ওসি মো. খালেদ হোসেন জানান, স্থানীয়রা গুরুতর আহত শাহীন চৌধুরীকে উদ্ধার করে পরশুরাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মহিউদ্দিন তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই হাসপাতাল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসাপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

ওসি আরও জানায়, এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী ফিরোজা আক্তার বাদী হয়ে মামলার পর চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে প্রধান অভিযুক্ত চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান পলাতক রয়েছেন।

মির্জানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ভুট্টু ঘটনার পর আত্মগোপনে থাকায় তার বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here