একদিনেই হিলি স্থলবন্দর দিয়ে এলো ২ হাজার টন পেঁয়াজ

0
49

(দিনাজপুর২৪.কম) পবিত্র শবে বরাত ও তিন দিন পেঁয়াজ আমদানি বন্ধে বাড়তি চাহিদার কথা মাথায় রেখে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজের আমদানি বাড়িয়েছেন বন্দরের আমদানিকারকরা। একদিনেই বন্দর দিয়ে সর্বোচ্চ ৭৭টি ট্রাকে ২ হাজার ১৭৬টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এতে একদিনেই বন্দরে পাইকারিতে পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ২/৩ টাকা করে। একদিন আগেও প্রতিকেজি পেঁয়াজ প্রকারভেদে ২০ টাকা থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা কমে ১৮ টাকা থেকে ২৩ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বন্দর দিয়ে ইন্দোর, নাসিক, গুজরাট, নগর জাতের পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে। ইন্দোর জাতের পেঁয়াজ একদিন পূর্বে ২০ টাকা বিক্রি হলেও তা থেকে কমে ১৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এ ছাড়া নাসিক গুজরাট নগর জাতের পেঁয়াজ ২৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে ২৩ থেকে ২৪ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। একইভাবে হিলি বাজারে খুচরা বাজারেও কমেছে পেঁয়াজের দাম। পূর্বে ১৬ থেকে ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা কমে ১৪ থেকে ১৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

হিলি বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা শাকিল খান বলেন, বন্দর দিয়ে প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানির ফলে বাজারে পেঁয়াজের পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে। যার কারণে প্রতিদিনই পেঁয়াজের দাম কমছে। বর্তমানে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ১৪ থেকে ১৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন দিনাজপুর২৪.কমকে বলেন, বন্দর দিয়ে পেঁয়াজের আমদানি পূর্বের চেয়ে দিন দিন বাড়ছে। তবে এ যাবৎকালের মধ্যে সর্বোচ্চ গতকাল একদিনেই ৭৭টি ট্রাকে ২ হাজার ১৭৬ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এসব পেঁয়াজ যাতে কাস্টমসের সকল প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে দ্রুত আমদানিকারকরা খালাস নিতে পারেন সে জন্য বন্দর কর্তৃপক্ষ সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here