খায়রুজ্জামানকে হস্তান্তরে স্থগিতাদেশ, পরবর্তী শুনানি ২০ মে

0
96

(দিনাজপুর২৪.কম) মালয়েশিয়ায় আটক সাবেক হাইকমিশনার এম খায়রুজ্জামানকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তরে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

খায়রুজ্জামানের পক্ষে করা এক রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট সোমবার এই আদেশ দেয়।

হেবিয়াস কর্পাস আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মোহাম্মদ জাইনি মাজলান সাবেক এই বাংলাদেশি কূটনীতিককে দেশে ফেরত পাঠাতে ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্টের উদ্যোগের বিরুদ্ধে অন্তর্বর্তী এই আদেশ দেন।

এর আগে শুক্রবার খায়রুজ্জামানের আবেদন গ্রহণ করে সোমবার আদেশের দিন ধার্য করেছিলেন বিচারক।

ফ্রি মালয়েশিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘অজ্ঞাত’ কারণে বাংলাদেশে ‘ওয়ান্টেড’ ৬৫ বছর বয়সী খায়রুজ্জামান। তবে তার স্ত্রী রীতা রহমান বলেছেন, বাংলাদেশ সরকারের আবেদনে তাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

খায়রুজ্জামানের আইনজীবী এএস ঢালিওয়াল দাবি করেন, তার মক্কেল (খায়রুজ্জামান) একজন রাজনৈতিক শরণার্থী। তিনি জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার (ইউএনএইচিআর) কার্ডধারী। তিনি কোনো অভিবাসন আইন লঙ্ঘন করেননি। তাকে আটক করা বেআইনি। তাকে বহিষ্কার করার অধিকার মালয়েশিয়ার নেই।

গত বুধবার খায়রুজ্জামান আটক করা হয়। তিনি এখন অভিবাসন সেলে রয়েছেন। খায়রুজ্জামানের গ্রেপ্তারের পর সামনে এসেছে ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বরের জেলহত্যা মামলার বিষয়টি।

খায়রুজ্জামানকে মালয়েশিয়া থেকে ফিরিয়ে আনতে সরকারের তরফ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মালয়েশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের বন্দিবিনিময় চুক্তি না থাকায় কীভাবে তাকে ফিরিয়ে আনা যায়, সে বিষয়ে কূটনৈতিক ও আইনি বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here