টিটিই শফিকুল ইসলামকে বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার

0
32

(দিনাজপুর২৪.কম) রেলের ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) শফিকুল ইসলামকে বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। রবিবার দুপুর ১২টায় ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দিয়েছেন পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ে ম্যানেজার (ডিআরএম) শাহিদুল ইসলাম।

তবে রেলমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয়দানকারী তিন ব্যক্তিকে জরিমানার ঘটনার তদন্ত চলবে বলেও জানিয়েছেন ডিআরএম।

এদিকে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজনও শফিকুল ইসলামকে বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হবে বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি শফিকুলকে তড়িঘড়ি বরখাস্তের আদেশ দেওয়া বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও পাকশী) নাসির উদ্দিনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দেওয়া হবে বলে জানান।

রবিবার দুপুরে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

রেলমন্ত্রী বলেন, টিকিট ছাড়া যাত্রী ভ্রমণ এবং এই নিয়ে জটিলতায় যে তার আত্মীয় জড়িত তা তিনি জানতেন না। গণমাধ্যম থেকে ফোন করার পর তিনি পরে জানতে পেরেছেন।

গত ৫ মে রাতে ঈশ্বরদী থেকে ওঠা তিন যাত্রীকে বিনা টিকিটে ভ্রমণের জন্য জরিমানা করেন টিটিই শফিকুল ইসলাম।

 ওই তিন যাত্রী রেলমন্ত্রীর আত্মীয় বলে পরিচয় দিয়েছিলেন। টিকিট ছাড়াই পাবনা থেকে ঢাকামুখী ট্রেনে উঠে এসি কামরায় বসেছিলেন তিন যাত্রী। তখন টিটিই বিনা টিকিটে ভ্রমণের জন্য তাদের কাছ থেকে জরিমানাসহ ভাড়া আদায় করেন। পাশাপাশি এসি কামরাও ছাড়তে হয় তাদের।

গত বৃহস্পতিবার রাতের এ ঘটনার পর ওই টিটিইকে মুঠোফোনে বরখাস্ত করার কথা জানিয়ে দেওয়া হয়। পরদিন শুক্রবার তিনি আর কাজে যোগ দিতে পারেননি।

ওই তিন যাত্রী রেলমন্ত্রীর স্ত্রী শাম্মী আক্তারের নিকটাত্মীয়। তার ফোন পেয়েই টিটিইকে বরখাস্ত করা হয় বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

টিটিইকে বরখাস্ত করার খবর প্রকাশের পর নানা মহলে সমালোচনা শুরু হয়।

টিটিইর বরখাস্তের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের কথা জানিয়ে সুজন বলেন, ‘তার সাসপেনশন লেটার উইথড্র করা হচ্ছে এবং যে ডিসিও (বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা) এ ধরনের অর্ডার দিয়েছে, তাকে আমরা একটা শোকজ করছি যে, কীভাবে সেটা দিল। কাজেই বিষয়গুলো সবই চলে আসবে। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here