ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জ উপজেলায় ভূমিদস্যু ও মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় একই পরিবারের ৫ জন আহত

0
59

মোঃ মোকাররম হোসেন, ঠাকুরগাঁও থেকে ফিরে (দিনাজপুর২৪.কম) ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ৯নং সেনগাও ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নং ওয়ার্ডের বেলদহি খালপাড়া গ্রামে,র স্থায়ী বাসিন্দা মৃত ইয়াছ মোহাম্মদ এর ২য় পুত্র মোকসেদ আলীর তফসিলভুক্ত পৈত্রিক সম্পত্তি জোরপূর্বক দখলের জন্য মরিয়া হয়ে় উঠেছে একই এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু ও মাদক ব্যবসায়ীরা এরা হলেন, হাসমত আলীর পুত্র মোঃ আব্দুস সোবাহান, ইসমাইল আলীর পুত্র আব্দুর রাজ্জাক, সোবাহান আলীর পুত্র মোঃ পলাশ, আব্দুল মালেক এর পুত্র মোঃ সোহাগ, হাসমত আলীর পুত্র আব্দুর রহমান, আব্দুল কুদ্দুস আলীর পুত্র সোহেল রানা, হাসমত আলীর পুত্র আব্দুল কুদ্দুস ও মোবারক আলী।
পীরগঞ্জ থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ৭ মে ২০২২ ইং তারিখ সকাল অনুমান ৯ ঘটিকার সময় একদল সন্ত্রাসী বাহিনী মোকছেদ আলীর জমির ফসল কাটতে শুরু করে এ সময় মোকসেদ আলী ও তার পরিবার জমির ফসল কাটতে বাধা প্রদান করলে সন্ত্রাসীরা লোহার রড, শাবল, বল্লম ও লাঠিসোটা নিয়ে় মোকছেদ আলী ও তার পরিবারের উপর হামলা চালায়। এ সময় মোকছেদ আলীসহ তার পরিবারের ৪ জন সদস্য গুরুতর আহত হয়। উক্ত ঘটনায় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে তাদের মধ্যে ১ জন হামলার শিকার হন। মোকসেদ আলীর স্ত্রী মোছাঃ তাইয়াতুনেচ্ছা ময়না দুই হাতের আঙ্গুলে এবং পিঠের মধ্যে আঘাত করে। এ সময় ঘটনাস্থলে মোকছেদ আলীর কন্যা সাদিয়া আক্তার এগিয়ে আসলে তাকেও পায়ের হাটুতে ও হাতে আঘাত করে। সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ৫ জনের মধ্যে ৪ জন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরলেও মোকসেদ আলী এখনো দিনাজপুরে মৃত্যুর মুখোমুখি থেকেও চিকিৎসা নিচ্ছেন।
হামলায় আহত মোকসেদ আলীর বড় ভাই তাজুল ইসলামের স্ত্রী জমিরন নেছাকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে দ্রুত দিনাজপুর জিয়া হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে প্রেরন করেন। বর্তমানে তিনি মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
এলোপাতাডি মারপিটের পর সন্ত্রাসীরা মোকসেদ আলী ও তার পরিবারকে প্রকাশ্য হুমকি দিয়ে় বলেন, এরপর থেকে কেউ জমিতে আসলে তার সে লাশ হয়ে বাড়ী ফিরবে। যদি কারো জীবন নিতে হয় নিবো তবুও মোকসেদ আলি কে জমি নিতে দেয়া হবে না। থানা পুলিশ আমাদের পকেটে থাকে যদি কেউ আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করে তাহলে তারা বড় ভুল করবে।
ইতিপূর্বে এই বাহিনী মোকসেদ আলীকে স্ব-পরিবারে হত্যার উদ্দেশ্যে তার বাড়িতে আগুন ধরিয়ে় দেয়। সে সময় মোকসেদ আলী মামলার প্রস্তুতি নিলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মামলা না করার জন্য মোকসেদ আলী কে নির্দেশ প্রদান করেন। একেই বলে প্রদীপের নিচে অন্ধকার!
উল্লেখ্য, ১ একর সাড়ে ৩১ শতাংশ জমির মুল মালিক মোকসেদ আলী গং হওয়া সত্ত্বেও তার মধ্যে অর্ধেক জমি ভূমিদস্যুরা নিজ দখলে রেখে জমির প্রকৃত মালিক মোকসেদ আলী যে কোনো মুল্যে সরিয়ে দেয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। ভুক্তভোগী পরিবারটি তাদের জমি ও যান মালের নিরাপত্তা চেয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here