দিনাজপুরে বিয়েতে হাজির ইউএনও- কনে সাজলেন ভাবি

0
66

স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নে বাল্যবিয়ে খবরে পুলিশ নিয়ে হাজির হন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিমল কুমার। বিপদের আশঙ্কায় বউ সাজেন বরের ভাবি। এ ঘটনায় কাজীকে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বরকে করা হয়েছে জরিমানা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় ওই ইউনিয়নের ন্যাটাশন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
অভিযানে কাজী উপজেলার চেংমারী গ্রামের বাসিন্দা কাজী রেহান রেজাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয় আদালত। এদিকে বর নবাবগঞ্জ উপজেলার কুশদহ ইউনিয়নের রুবেল ইসলামকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, খানপুর ইউনিয়নের ন্যাটশন এলাকায় ষষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন চলছে। এমন খবরে থানা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন ইউএনও। বিয়ের জন্য নিকাহ রেজিস্ট্রার খসড়া লেখাও শেষ পর্যায়ে। এ সময় ইউএনওর উপস্থিতি টের পেয়ে কাজী দৌড়ে পালাতে চেষ্টা করে আর বরের পাশে কনে সেজে মেয়ের ভাবি বসে পড়েন। বিষয়টি ইউএনওর নজরে আসে।

ইউএনও পরিমল কুমার বলেন, আমাদের বোকা বানাতে কনেকে সরিয়ে তার ভাবি বৌ সেজে বসে ছিলেন। তবে অভিযানের আগেই কাজী নিকাহ রেজিস্টারে খসড়া লেখা শেষ করেছিলেন। কনের বাবাকে ভবিষ্যতে নাবালিকা মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন না বলে মুচলেকা দেয়া হয়।

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here