দিনাজপুরে মেয়ে হত্যায় মায়ের যাবজ্জীবন

0
44
যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সাদিয়া আক্তার আশা। ছবি: সংগ্রহীত

স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরে ৬ বছরের শিশুকে শ্বাস রোধ করে হত্যার দায়ে মা সাদিয়া আক্তার আশাকে বিচারক দোষী সাবাস্ত করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। একইসঙ্গে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে দিনাজপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. যাবেদ হোসেন আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার পর আসামিকে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

দিনাজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট রবিউল ইসলাম রবি জানান, সাদিয়া আক্তার আশার স্বামী এরশাদ আলী ঢাকায় কাজ করতেন। তাদের মধ্যে পারিবারিক দ্বন্দ্ব লেগেই থাকতো। ২০১৭ সালের ৬ জুলাই রাতে সাদিয়া তার ছয় বছরের মেয়ে মাইমুনাকে নিয়ে ঘুমাতে যান। পরেরদিন ৭ জুলাই সকালে বাড়ির লোকজন তাদের কোনো সাড়া না পেয়ে দরজা খুলে ভিতরে ঢুকে মাইমুনার মৃতদেহের পাশে সাদিয়াকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে। জ্ঞান ফেরার সাদিয়া তার নিজ সন্তানকে হত্যার কথা স্বীকার করে। এরপর এরশাদ আলীর বড় ভাই ইব্রাহিম আলী বাদী হয়ে সাদিয়াকে আসামি করে পাবর্তীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি পাবর্তীপুর থানার পুলিশ তদন্ত করে সাদিয়ার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র পেশ করলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচার কাজ শুরু হয়। বাদী পক্ষে ২২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক আসামিকে আজ দোষী সাব্যস্ত করে এই রায় ঘোষণা করেন। মামলাটি বাদী পক্ষে পিপি মো. রবিউল ইসলাম এবং আসামি পক্ষে অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহাতব উদ্দীন পরিচালনা করেন।
মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here