ধর্ষণের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামি হাইকোর্টে খালাস

0
55
(দিনাজপুর২৪.কম) এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিলো নিম্ন আদালত। কিন্তু হাইকোর্ট বিচারিক আদালতের দেয়া মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের অনুমোদনের ডেথ রেফারেন্স খারিজ ও আসামিদের আপিল মঞ্জুর করে খালাস দিয়েছেন।
মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি কে এম ইমরুল কায়েশের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।
খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চর বসু গ্রামের ছানাউল্লাহ, আন্ডার চর গ্রামের মো. রহিম, চর কালকিনি গ্রামের মো. হারুন ও একই গ্রামের আবুল কাসেম।
ডেথ রেফারেন্স শুনানিতে হাইকোর্টে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ সাইফুজ্জামান জামান। আর আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী হেলাল উদ্দিন মোল্লা।
আসামিপক্ষের আইনজীবী জানান, মেডিকেল রিপোর্টেও ধর্ষণের প্রমাণ আসেনি। তাছাড়া রাষ্ট্রপক্ষ অভিযোগ প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছে। তাই আদালত আসামিদের খালাস দিয়েছে।
মামলাসূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ২২ ডিসেম্বর রাত আড়াইটার দিকে কমলনগর উপজেলায় একটি ঘরের দরজা ভেঙে আট-নয়জন এক গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে। ঘুমন্ত অবস্থায় হাত-পা বেঁধে তারা গৃহবধূর ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায়। মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। ওই ঘটনায় ভুক্তভোগী নারীর স্বামী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত চার-পাঁচজনকে আসামি করে কমলনগর থানায় একটি মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ৩১ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।
বিচারিক আদালতে মামলার শুনানি শেষে ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ চারজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে খালাস দেয় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ এ কে এম আবুল কাশেম।
নিয়ম আনুযায়ী পরে মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে পাঠানো হয়। পাশাপাশি আসামিরা আপিল করেন। ডেথ রেফারেন্স ও আপিল মামলার শুনানি নিয়ে রায় দেয় হাইকোর্ট। -ডেস্ক রিপোর্ট
মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here