নেপালে প্লেন দুর্ঘটনায় এখনো নিখোঁজ ৪

0
23

(দিনাজপুর২৪.কম) নেপালের পোখারা বিমানবন্দরে প্লেন দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৬৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছে আরও চারজন। এ অবস্থার মধ্যেই গতকাল রোববার উদ্ধার কার্যক্রম স্থগিত করা হয়, যা আজ আবারও শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

কাঠমান্ডু পোস্ট জানিয়েছে, ৭২ জন যাত্রী ও ক্রু নিয়ে ইয়েতি এয়ারলাইন্সের এটিআর-৭২ মডেলের একটি প্লেন অবতরণের কয়েক মিনিট আগে বিধ্বস্ত হয়। সেই সময় প্লেনটিতে আগুন ধরে যায়। দুই ইঞ্জিনের ওই প্লেনটিতে মোট ৬৮ জন যাত্রী ছিলেন, যাদের মধ্যে ১৫ জনই ছিলেন বিদেশি নাগরিক। বাকি চারজন ছিলেন কর্মী।

বিধ্বস্ত প্লেনে স্থানীয়দের পাশাপাশি ১৫ জন বিদেশি নাগরিকও ছিলেন। তাদের মধ্যে পাঁচজন ভারতের, চারজন রাশিয়ার, একজন আইরিশ, দুজন দক্ষিণ কোরিয়ার, একজন অস্ট্রেলিয়ার, একজন ফ্রান্সের ও একজন আর্জেন্টিনার নাগরিক।

নেপালের সিভিল এভিয়েশনের মুখপাত্র জগন্নাথ নিরাউলা জানান, পাহাড়ি এলাকা হলেও দুর্ঘটনার সময় আকাশ পরিষ্কার ছিল। তাহলে কেন এমন দুর্ঘটনা ঘটল সেটি নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়।

এক বিবৃতিতে দেশটির সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রোববার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত সংযোগ ছিল প্লেনটির। এরপর এটি বিধ্বস্ত হয়। ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটরাডার ২৪ বলছে, প্লেনটি ১৫ বছরের পুরনো ছিল।

এ ঘটনার পর মন্ত্রিপরিষদের জরুরি বৈঠক ডেকেছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী পুষ্পকমল দহল। দেশের এজেন্সিগুলোকে উদ্ধার অভিযানে অংশ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

নেপালে ১৯৯২ সালের ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনার পরে এটাই সবচেয়ে বেশি মারাত্মক বিমান দুর্ঘটনা। এভিয়েশন সেফটি নেটওয়ার্কের তথ্য অনুযায়ী, সেই বছর পাকিস্তানি এয়ারবাস এ-৩০০ কাঠমান্ডুতে অবতরণ করতে গিয়ে একটি পাহাড়ে বিধ্বস্ত হয়। -ডেস্ক রিপোর্ট

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here