পাটুরিয়া ঘাটে নদী পারের অপেক্ষায় চার শতাধিক যান

0
75

(দিনাজপুর২৪.কম) ঈদযাত্রার দ্বিতীয় দিনে বেড়েছে ঘরমুখো মানুষের চাপ। ভোর থেকেই পাটুরিয়া ও আরিচা ঘাট এলাকায় যানবাহনের দীর্ঘ জট লেগেছে। ঘাটে পদ্মাপারের অপেক্ষায় রয়েছে চার শতাধিক যানবাহন।

পদ্মা পারে সময় লাগায় কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে গাড়ির এমন জট সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এসব যানে থাকা লোকজন।

বৃহস্পতিবার ভোর থেকে গাড়ির এমন জট তৈরি হলেও বিকাল নাগাদ গাড়ির সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন ঘাট সংশ্লিষ্টরা। কারণ হিসেবে তারা জানান, আজ শেষ কর্মদিবস হওয়ায় অনেকে অফিস করেই বাড়ির পথে রওনা হবেন। যে কারণে বিকালে গাড়ি ও মানুষের সংখ্যা আরও বাড়বে।

সরেজমিনে পাটুরিয়া ও আরিচায় ঈদে ঘরমুখো দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীদের চাপ দেখা গেছে। পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও আরিচা-নগরবাড়ি নৌ-রুট দিয়ে স্বাভাবিক দিনের চেয়ে কয়েক গুণ বেশি যাত্রীরা যার যার গন্তব্যে যাচ্ছেন।

দেশের গুরুত্বপূর্ণ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুট। স্বাভাবিক সময়ে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২২শ’ থেকে ২৫শ’ বাস কোচ, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন পারাপার হয়। কিন্ত ঈদের সময় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুট দিয়ে প্রায় সাড়ে ৫ থেকে সাড়ে ৬ হাজার যানবাহন পারাপার হয়ে থাকে প্রতিদিন।

পাটুরিয়া ঘাটে প্রতিবছর ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এবার ওই সমস্যাগুলো তেমন নেই। তবে এবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ঘাট এলাকা যানজটমুক্ত রাখতে পাটুরিয়া ঘাট এলাকা থেকে ১০ কিলোমিটার আগে বাইপাস সড়ক টেপড়া থেকে আমডালা রুপসাবাজার ও নালীবাজারের ভেতর দিয়ে পাটুরিয়া ৫ নম্বর ফেরি ঘাটে প্রাইভেট কার ও মাইক্রোবাস ঘাটে প্রবেশ করাচ্ছেন।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা অফিস সূত্রে জানা যায়, এবার ঈদে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটে ছোট-বড় ২১টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার ও ২৪টি লঞ্চ দিয়ে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।

আরিচা অফিসের বিআইডব্লিউটিসির ডিজিএম খালেদ নেওয়াজ জানান, আজ সরকারি-বেসরকারি অফিস আদালত ছুটি হয়ে যাবে। এ কারণে দুপুরের পর থেকে যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ বেড়ে যাবে। তবে গাড়ির সারি যেন দীর্ঘ না হয় সেজন্য তারা আপ্রাণ চেষ্টা করবেন। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here