ফারদিনের ‘মৃত্যুর’ তথ্য র‌্যাব-ডিবি

0
33

(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম) বুয়েটছাত্র ফারদিন নূর পরশের মৃত্যু নিয়ে তদন্তে পাওয়া তথ্য র‍্যাব ও ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) কাছ থেকে জানার পরামর্শ দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। আজ শুক্রবার মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজধানীর রাজারবাগ শহীদ স্মৃতিসৌধে প্রধান অতিথি হিসেবে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ পরামর্শ দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘আমার মনে হয়, আমাদের র‍্যাব, আমাদের ডিবি, বিষয়টি (ফারদিনের মৃত্যু) সুন্দর করে বিশ্লেষণ করে বলেছে। কাজেই আপনাদের কিছু জানার থাকলে সেখান থেকে জেনে নিন।’

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে ফারদিনের লাশ উদ্ধারের ৩৭ দিন পর গত বুধবার ডিএমপির ডিবি ও র‌্যাব বিষয়টিকে আত্মহত্যা বলে দাবি করেছে। পৃথক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি করে।

র‌্যাব ও ডিবি উভয় সংস্থাই বলেছে, গত ৪ নভেম্বর দিবাগত রাত ২টা ৩৪ মিনিটে ঢাকার ডেমরার সুলতানা কামাল সেতু থেকে স্বেচ্ছায় শীতলক্ষ্যা নদীতে লাফ দেন ফারদিন।

তবে র‍্যাব ও ডিবির দাবি মানতে রাজি নন ফারদিনের বাবা কাজী নূর উদ্দীন। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে আত্মহত্যা করতে পারে না। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। পরিকল্পিতভাবে হত্যার পর এখন আত্মহত্যার নাটক সাজানো হচ্ছে।’

গত ৪ নভেম্বর রাত থেকে নিখোঁজ হন ফারদিন নূর পরশ। এর তিনদিন পর ৭ নভেম্বর বিকেলে নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে নৌ-পুলিশ। মরদেহ ময়নাতদন্তের পর চিকিৎসকরা জানান, তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

মরদেহ উদ্ধারের দুদিন পর ১০ নভেম্বর ফারদিনের বান্ধবী ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্রী আমাতুল্লাহ বুশরাসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে রামপুরা থানায় মামলা করেন ফারদিনের বাবা কাজী নূর উদ্দিন। সে মামলায় বুশরাকে গ্রেপ্তার করে পাঁচ দিনের রিমান্ডেও নেওয়া হয়।

ফারদিন নূর পরশের মরদেহ উদ্ধারের পর র‌্যাব ও পুলিশের পক্ষ থেকে ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য দিতে দেখা যায়। তখন আলোচনায় আসে মাদক কারবারিদের সঙ্গে ফারদিনের সম্পর্ক ছিল। র‌্যাব দাবি করে, ফারদিনকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের চনপাড়া বস্তিতে মাদক কারবারিরা খুন করেছে। তখন ডিবি পুলিশ দাবি করে ফারদিন চনপাড়ায় যাননি। -ডেস্ক রিপোর্ট

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here