ফুলবাড়ীতে কলেজের বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশন করার প্রতিবাদে কলেজ কর্তৃপক্ষের সংবাদ সম্মেলন

0
72

মোঃ আফজাল হোসেন (দিনাজপুর২৪.কম) ফুলবাড়ী টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম ইনস্টিটিউট কলেজের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ মোহাম্মদ আলী কাদের নেওয়াজ গংরা গত ২৩/১০/২০২২ ইং তারিখে কলেজের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ আবু তৈয়ব সালাহ্ উদ্দিন গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় কলেজ সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে ফুলবাড়ী টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম ইনস্টিটিউট কলেজ এর অধ্যক্ষ মোঃ আবু তৈয়ব সালাহ্ উদ্দিন মোঃ আলী কাদের নেওয়াজ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, মরহুম আলহাজ্ব দারাজ উদ্দীন মন্ডল এর পুত্র মোঃ আলী কাদের নেওয়াজ গং এর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। মরহুম আলহাজ্ব দারাজ উদ্দীন মন্ডল এর সম্মতিতে গত ০২/০৬/২০০১ ইং সালে ২৪৯ নং দাগের জমির উপর কলেজ স্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। ২০০১ইং সালে সবার অনুমোতিতে অবকাঠামো নির্মাণ করি। পৌর সভার অনুমোদন ক্রমে ৫তলা ভবন নির্মানের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করি। মোঃ আলী কাদের নেওয়াজ এর দলিলে ঐ জমির কোন চৌহদ্দি উল্লেখ নাই। উক্ত তারিখের পূর্বেই প্রতিষ্ঠানের কমিটির অনুমোদন ক্রমে গত ২৩/০৮/২০২২ ইং তারিখে ৫১/২২ অন্য একটি মোকদ্দমা মহামান্ন বিজ্ঞ জজ আদালত দিনাজপুর এ একটি মামলা দায়ের করা সহ অস্থায়ী নিষেধ্যজ্ঞার মাধ্যমে গত ১২/১০/২০২২ইং তারিখের মধ্যে প্রতিপক্ষ কাদের নেওয়াজ গং দের জবাব দেওয়ার দিন ধার্য ছিল। আদালতে জবাব না দিয়ে মোঃ আলী কাদের নেওয়াজ এর জামাতা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (প্রশাসনিক কর্মকর্তা) ফুলবাড়ী পৌরসভাকে এবং অন্যান্য সুধিজনদের কে ভূল বুঝিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে সরকারি জমি মাপযোগে জটিলতা সৃষ্টির চেষ্টা করে। গত ২৮/০৮/২০১৭ ইং তারিখে স্থানীয় এমপির নির্দেশে এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে পূর্ব দিকে ৩৬ শতাংশ এবং পশ্চিম আংশে কাদের নেওয়াজ গংরা ৩২ শতাংশ অবস্থানে অবস্থান করবেন মর্মে সমোঝতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়। কিন্তু কাদের নেওয়াজ তা মেনে নেন না। আমার পরিবার ৭০ বছর ধরে ঐ জায়গায় বসবাস করে আসছেন। কাদের নেওয়াজ গংরা এখানে কোন দিন বসবাস করেন নি। ফুলবাড়ী পৌরসভা কলেজের ভবন নির্মানে কাগজ পত্র জমা দিলে স্বারক নং-ফুল:পৌ/২০১২-২০১৩ তে ৫তলা ভবন নির্মাণের অনুমোতি প্রদান করেন গত ১০/১০/২০১৩ইং সালে সাবেক মেয়র মুর্তজা সরকার মানিক। মোজাফ্ফর হোসেন ও কাদের নেওয়াজ তারা আপন দুই ভাই। তাদের পিতা দারাজ উদ্দীন ১০০ একর জমি রেখে মৃত্যুবরণ করেন। কাদের নেওয়াজ তার পিতার সম্পূর্ণ জমি জমার মালিক হন অনিয়ম এর মাধ্যমে। তারা সাড়ে ২৭ একর জমি ও পূর্বের বাড়ী ভোগদখল করছেন। মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন কে ফাঁকি দিয়ে। আব্দুস খালেক ও মোঃ আলী কাদের নেওয়াজ এর বিরেুদ্ধে অস্থায়ী নিষেধজ্ঞা চেয়ে মোকদ্দমা রয়েছে আদালতে। মোজাফ্ফর হোসেন এর পিতা মোঃ দারাজ উদ্দীন গত ২৪/০৬/১৯৯ ইং সালে জেলা দিনাজপুর নোটারি পাবলিক সমীপে পূর্ব গৌরীপাড়া মৌজার ২৪৯ দাগে ৬৭ শতক জমি কাঁচা পাকা ভবন সহ তার পুত্র মোজাফ্ফর হোসেন এর নামে দানপত্র করে দেন। সে সময় থেকে অধ্যক্ষ আবু তৈয়ব সালাহ উদ্দীন জমির খারিজ খাজনা, বিদ্যুৎ বিল সহ সকল কার্যক্রম অব্যহত রেখেছেন। কিন্তু একটি মহল কলেজটি ধ্বংস করা জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। এই ঘটনায় আমি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে ন্যায় বিচার চাই।

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here