বক্তা মুফতি মাজহারুল ইসলামকে সতর্ক করবেন নরসিংদীর উলামায়ে কেরাম

0
115

(দিনাজপুর২৪.কম) সাম্প্রতিক সময়ে মুফতি মাজহারুল ইসলাম মাজহারী নামে এক বক্তার ভিডিওর কিছু অংশ ছড়িয়ে পড়েছে নেট মাধ্যমে। এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে নেটিজেনদের মধ্যে।

মঞ্চে অপেশাদারী অঙ্গভঙ্গির অভিযোগ

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে আলোচিত বক্তা বিভিন্ন নায়ক নায়িকা নাম উদ্ধৃত করে এমন বক্তব্য দিয়েছেন এবং অপেশাদারী বেশকিছু অঙ্গভঙ্গিও করেছেন যা মাহফিলের মঞ্চের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে মন্তব্য নেট নাগরিকদের। এছাড়াও প্রচলিত বিভিন্ন গানের কলি উদ্ধৃত করতে দেখা গেছে তাকে; যা আলেমদের সাথে একেবারেই বেমানান বলে মন্তব্য সচেতন শ্রোতাদের।

এছাড়াও কুরআন-হাদীসের মৌলিক আলোচনা বাদ দিয়ে মাহফিলে অংশ নিতে তিনি কোথা থেকে কোথায় সফর করেছেন, বিমান-হেলিকপ্টারে কোন মাসে কতবার সফর করেছেন; এমন সব অবান্ত বক্কব্যে  মাহফিলের মঞ্চকে এক ধরনের কৌতুক হাস্যরসের আড্ডায় পরিণত করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সতর্ক করবেন নরসিংদীর আলেম সমাজ

এ বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হয়েছে ওলামায়ে কেরামের। বিষয়টি সমাধানে নরসিংদী জেলার কওমি মাদরাসাগুলোর সমন্বিত বোর্ড তানযীমুল মাদারিসিল‌ কওমিয়ার অধীনে বিশেষ বৈঠক করেছেন জেলার ওলামায়ে কেরাম। এতে অংশগ্রহণ করেছেন নরসিংদীর শীর্ষ স্থানীয় প্রায় ২০ জন আলেম।

সমন্বিত সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বোর্ডের সভাপতি ও দারুল উলুম দত্তপাড়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা শওকত হুসাইন সরকারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বক্তা মাজহারুল ইসলাম মাজহারীকে সংশোধনের এবং তাকে বোঝানোর।

আওয়ার ইসলামকে মাওলানা শওকত হুসাইন সরকার বলেছেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ে বক্তা মাজহারুল ইসলাম মাজহারীকে বোঝানোর চেষ্টা করা হবে ওয়াজ মাহফিলের মঞ্চকে যেন তিনি দাওয়াত প্রচারের মাধ্যম হিসেবে গ্রহণ করেন। এর বাইরে মাহফিলগুলোকে বিতর্কিত করার যেকোন ধরনের অপচেষ্টা থেকে তিনি যেন বিরত থাকেন’।

বক্তাদের প্রতি আহ্বান

‘প্রাথমিক এ আহ্বান না মানলে পরবর্তীতে তার বিষয়ে পরামর্শের ভিত্তিতে বিশেষ সিদ্ধান্ত নেয়া হবে এবং বিষয়টি প্রশাসন পর্যন্তও যেতে পারে’ বলে জানান তিনি।

ওয়াজ মাহফিল দ্বীনি দাওয়াত প্রচারের মাধ্যম। মাহফিলগুলোকে বিতর্কিত ও কৌতুকের মঞ্চ না বানাতে বক্তাদের প্রতি বিশেষ আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

ওলামায়ে কেরামের বদনাম হয় এবং দ্বীনি মাহফিল গুলো হাসির খোরাকে পরিণত হয় এমন কোন কাজ যেন বক্তাদের মাধ্যমে প্রকাশ না পায় এ বিষয়টির প্রতিও খেয়াল রাখার আহ্বান জানান তিনি।

কুরআন-হাদীসের বিষয়ে মুতালা করে মানুষকে দ্বীনের সঠিক বার্তা পৌঁছানোর কথা বলেছেন তানযীমুল মাদারিসিল‌ কওমিয়ার সভাপতি ও দারুল উলুম দত্তপাড়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা শওকত হুসাইন সরকার।

ভাইরাল ভিডিও নিয়ে যা বলছেন বক্তা মুফতি মাজারুল ইসলাম মাজহার

এ বিষয়ে আওয়ার ইসলামের পক্ষ থেকে বক্তা মুফতি মাজারুল ইসলাম মাজহারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সবকিছুতেই সমালোচনা থাকে, তবে আমাকে যারা ভালোবাসেন আমি তাদের নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই।

তিনি বলেন, দুই আড়াই ঘন্টার মাহফিলে মানুষকে সতেজ রাখতে শরীয়ত সম্মত উপায়ে হাসি কৌতুক হতেই পারে, তাই বলে একে নিয়ে সমালোচনার কিছু নেই।

‘কিছু ইউটিউবার এবং ফেসবুক ব্যবহারকারী নিজেদের লাইক কমেন্ট বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন সময়ের বক্তব্যকে কেটেছেঁটে প্রচার করছে, এতে আমার কিছু যায় আসে না। ভালো কিছু প্রচার না করে অন্যকে বিতর্কিত করার এই চেষ্টার মাধ্যমে তারা নিজেদেরই ক্ষতি করছে এবং নিজেদেরকে গুনাগার করছে’ বলে আওয়ার ইসলামের কাছে মন্তব্য করেন বক্তা মাওলানা মাজহারুল ইসলাম মাজহারী।

মাহফিলের আয়োজক কমিটির দায়

ইদানিং বিভিন্ন মাহফিলে বক্তাদের  কাছ থেকে অশোভনীয় যা কিছু প্রকাশ পাচ্ছে এজন্য অনেকেই দায়ী করেছেন আয়োজক কমিটিকে। কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন, মাহফিলের দাওয়াত দেওয়ার আগে একজন বক্তা সম্পর্কে সর্বোচ্চ খোঁজখবর নেওয়া এবং যাচাই বাছাই করা উচিত। বক্তাদের থেকে এমন বিশৃংখলার দায় আয়োজক কমিটিও কোনোভাবেই এড়াতে পারেন না মন্তব্য অনেকের।

প্রসঙ্গত, সর্বস্তরের মানুষের কাছে দ্বীনের দাওয়াত ছড়িয়ে দেওয়ার অন্যতম মাধ্যম ওয়াজ মাহফিল। আবহমানকাল ধরে বাংলার শহর-বন্দর গ্রামগঞ্জে শীতকাল এলেই ছড়িয়ে পড়ে ওয়াজ মাহফিলের আমেজ। জনসাধারণের মাঝে কুরআন-হাদীসের বার্তা পৌঁছে দেয়ার যতগুলো মাধ্যম রয়েছে ওয়াজ মাহফিলের মঞ্চ তার অন্যতম।

যুগ যুগ ধরে মাহফিলের মঞ্চগুলো মানুষের কাছে সত্য-ন্যায়ের বার্তা ছড়িয়ে আসছে স্বমহিমায়। এর মাধ্যমে সমাজে আলেমদের এক ধরনের প্রভাব প্রতিপত্তিও তৈরি হয়।

বক্তাদের প্রতি অগাধ শ্রদ্ধায় ভরে ওঠে মানুষের মন। তবে সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন বক্তার অসংযত বক্তব্যকে ঘিরে তৈরি হতে দেখা গেছে বিভিন্ন বিতর্ক। এতে করে হক্কানী আলেম ও বক্তাদের ইমেজেও পড়ছে বিরূপ প্রতিক্রিয়া।-অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here