বগুড়ার গুলিবিদ্ধ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা অরেঞ্জ মারা গেছেন

0
95

(দিনাজপুর২৪.কম) বগুড়ায় প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নাজমুল হাসান অরেঞ্জ (২৬) আটদিন লাইফ সাপোর্টে থাকার পরে মারা গেছেন।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। অরেঞ্জ সংগঠনটির জেলা শাখার সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সহসম্পাদক ছিলেন। তিনি মালগ্রাম দক্ষিণপাড়ার রেজাউল ইসলামের ছেলে।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তার লাশ বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

এর আগে গত ২ জানুয়ারি রাতে সেউজগাড়ি এলাকার ডাবতলা মোড়ে প্রতিপক্ষের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হন স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতা।  গুলিবিদ্ধদের মধ্যে একজন হলেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সহসম্পাদক নাজমুল হাসান অরেঞ্জ। অরেঞ্জ আটদিন বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গুলিবিদ্ধ আরেকজন হলেন, একই সংগঠনের স্থানীয় ওয়ার্ড কমিটির নেতা মিনহাজ শেখ আপেল। দুজনের মধ্য অরেঞ্জের চোখের নিচে এবং আপেলের পেটে গুলি লাগে। ঘটনার পর স্থানীয়রা উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করায়।

পুলিশ জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধের জেরে অরেঞ্জ ও আপেলকে গুলি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৩ জানুয়ারি বগুড়া সদর থানার সাতজনের নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়। অজ্ঞাত আসামি করা হয় আরও চার থেকে পাঁচজনকে।

নাজমুল হাসান অরেঞ্জের স্ত্রী স্বর্নালি আক্তার বাদী হয়ে মামলা করেন। গত বৃহস্পতিবার এই মামলায় টিপু নামের এক আসামিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

সদর থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।-অনলা্ইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here