বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ, বন্দরে ১ নম্বর সংকেত

0
69
-পুরনো ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় একটি নিম্নচাপ অবস্থান করছে। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

আজ শুক্রবার (৩ নভেম্বর) আবহাওয়া অধিদফতরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝড়োহওয়া আকারে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের কাছে সাগর মাঝারি ধরনের উত্তাল রয়েছে। এমন অবস্থায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১ নম্বর সতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে নতুন করে একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী লঘুচাপটি বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) রাত ৯টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ২৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে এক হাজার ১৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্র বন্দর থেকে এক হাজার ২৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে এক হাজার ২১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক জানান, নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার যা দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। কেন্দ্রের কাছে সাগর মাঝারি ধরনের উত্তাল রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা এবং পায়রা সমুদ্রবন্দরে এক নম্বর দূরবর্তী সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরা নৌকা ও ট্রলারগুলোকে উত্তর বঙ্গোপসাগরের কাছাকাছি থাকতে বলা হয়েছে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে।

আবহাওয়ার সিনপটিক অবস্থা অনুযায়ী, মধ্য আন্দামান সাগর ও এর কাছাকাছি এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি ঘণীভূত হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিনত হয়েছে এবং এটি বর্তমানে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। লঘুচাপটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। উপ মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ ভারতের বিহার এবং এর কাছাকাছি এলাকায় অবস্থান করছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, শুক্রবার অস্থায়ীভাবে মেঘলা আকাশসহ সারাদেশে শুষ্ক আবহাওয়া থাকতে পারে। সকালে দেশের কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা দেখা যাবে।

এছাড়া সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা বাড়বে আর দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকলেও আগামী দুই দিন বৃষ্টি ও বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। আর বর্ধিত পাঁচ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে চলমান অবস্থা বিরাজ করবে। -ডেস্ক রিপোর্ট

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here