শাহজালাল বিমানবন্দরে আগুন!

0
105
ছবি-সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে আগুনে পুড়ছে ব্যাংকক থেকে ঢাকায় আসা যাত্রীবাহী ফ্লাইটটি। রানওয়েতে নামতেই আগুনের সূত্রপাত ক্রমেই বেড়ে চলছে লেলিহান শিখা। কন্ট্রোল টাওয়ার থেকে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে অগ্নিনির্বাপক দল।

অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি সেবাদানকারী সব সংস্থা তাৎক্ষনিক চলে আসে। যাত্রী ও ক্রুসহ ৩৫ জনের মধ্যে আহত বেশ কয়েকজনকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। বাকি যাত্রীদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয় টার্মিনালে।

এই ঘটনাটি পুরো সাজানো।  বিমানবন্দরে এমন পরিস্থিতিতে জরুরি সেবায় নিয়োজিত সংস্থাগুলো কিভাবে কাজ করবে সেটারই মহড়া হয়ে গেলো হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রতি দুই বছর পর পর শাহজালাল বিমানবন্দরে এমন মহড়ার আয়োজন করা হয়।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে রাজধানীর কুর্মিটোলায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অনুষ্ঠিত হলো অগ্নিনির্বাপণ মহড়া। যাতে অংশ নেয় ফায়ার সার্ভিস, বিমান বাহিনী, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষসহ জরুরি চিকিৎসা সেবাদানকারী সংস্থা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। এ সময় তিনি যাত্রী হয়রানি নিয়েও সতর্ক করেন সবাইকে। পরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী যাত্রীসেবার মান বাড়ানোর তাগিদ দেন। এছাড়া বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল নির্মানের পাশাপাশি পুরাতন দুটি টার্মিনাল আধুনিকায়নের কাজ শুরুর কথাও জানান প্রতিমন্ত্রী।

বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, এই মহড়া আমাদের কাজের গতিকে বাড়িয়ে দিল। যে কোনো দুর্ঘটনা মোকাবিলায় আমরা কাজ করতে পারব।

অনুষ্ঠানে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বলেন, শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে বিশ্বমানের করে গড়ে তোলা হচ্ছে। বলেন, এ মহড়া সবার জন্য শিক্ষণীয় হয়ে থাকবে এবং সত্যিকার দুর্ঘটনার সময় যথাযথভাবে কাজে লাগাতে পারবে।-অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here