সালথা থানার সেই ওসি প্রত্যাহার

0
85
ছবি-সংগ্রহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) ফরিদপুরের সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আশিকুজ্জামানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তাকে ৯ এপ্রিলের মধ্যে নতুন কর্মস্থলে ঢাকা আর্মড পুলিশ হেডকোয়ার্টারে যোগদানের আদেশ দেয়া হয়েছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নগরকান্দা সার্কেল) সুমিনুর রহমান এর সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নির্ধারিত তারিখের মধ্যে আদেশ পালনে ব্যর্থ হলে ১০ এপ্রিল থেকে এটা স্ট্যান্ড রিলিজ বলে গণ্য হবে।

২০২১ সালের ৪ এপ্রিল সালথা থানায় যোগ দেন অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আশিকুজ্জামান। কর্মস্থলে তার যোগদানের একদিন পরেই ৫ এপ্রিল লকডাউনকে কেন্দ্র করে মোবাইল কোর্টের অভিযানের জের ধরে ঘটে সেই সালথার ট্রাজেডি। রাতের আধারে জড়ো হয়ে গ্রামবাসী ভূমি অফিস, উপজেলা ভবন, ইউএনওর বাসভবন ও সালথা থানায় সরকারি অফিস ও স্থাপনায় হামলা এবং অগ্নিসংযোগ করে সেসব জ্বালিয়ে পুড়িয়ে দেয়। কয়েকজন নিহত ও বহু সংখ্যক আহত হয় এ ঘটনায়।

তবে সম্প্রতি এলাকার একটি ঘটনা নিয়ে ওসি আশিকুজ্জামান ও এসআই আঃ হান্নানের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মুরাদ মোল্লা।

তিনি ওসি আশিকুজ্জামানের বিরুদ্ধে তার ইউপি নির্বাচনকালে তার কাছ থেকে ৭৫ হাজার টাকা চাঁদা আদায়ের অভিযোগ করেন। পরে আরো দুই লাখ টাকা দাবি করেন। ওই টাকা না দিলে তিনটি মামলায় তাকে আসামি করা হয়। তারপর গত ১৪ মার্চ মধ্যরাতে তার ভাই জিহাদকে ঘর থেকে তুলে থানায় নিয়ে হ্যান্ডকাপ দিয়ে জানালার সাথে ঝুলিয়ে পেটানো হয়। আদালতের নির্দেশে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) মামলাটি তদন্ত করছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নগরকান্দা সার্কেল) সুমিনুর রহমান বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় ওসি আতিকুজ্জামানকে বদলি আদেশ আসে। এটি নিয়মিত বদলির আদেশ। তিনি নিজেই বদলির আবেদন করেছিলেন। তিনি ৯ এপ্রিলের মধ্যে নতুন কর্মস্থলে যোগ না দিলে ১০ এপ্রিল থেকে এটা স্ট্যান্ড রিলিজ বলে গণ্য হবে। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here