স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিনে হাবিপ্রবিতে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত

0
44

(দিনাজপুর২৪.কম) হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের আয়োজনে ও ডিবেটিং সোসাইটি অব এইচএসটিইউ এর সহযোগিতায় আন্ত:অনুষদীয় দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০২২ এর চূড়ান্ত পর্ব ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান আজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুপুর ৩ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-১ এ উক্ত প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাবিপ্রবির মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এম. কামরুজ্জামান, আরও উপস্থিত ছিলেন প্রক্টর প্রফেসর ড. মো. মামুনুর রশীদ, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড. ইমরান পারভেজসহ অন্যান্যরা।
অনুষ্ঠানে মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এম. কামরুজ্জামান বলেন, আজকের দিনটি বাংলাদেশের ইতিহাসে যুগ যুগ ধরে স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এক্ষেত্রে যে দৃঢ় মনোবলের পরিচয় দিয়েছেন তা বাঙালি জাতি গর্বের সাথে চিরকাল স্মরণ করবে। যে বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ তুলে দূরে সরে গিয়েছিল আজ তারাই বঙ্গবন্ধু কন্যার ভূয়সী প্রশংসা করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রমাণ করে দিয়েছেন বাঙালি জাতি মাথা নোয়াবার নয়। এই ইতিহাস গুলো বিতর্ক প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন মাধ্যমে তরুণ প্রজন্ম কে ধারণ করতে হবে। তিনি বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। এটিকে ধারণ করেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এগিয়ে যাচ্ছেন এবং এর ফলেই আন্তর্জাতিক পরিসরে দুর্নীতির সকল অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত করে তিনি পদ্মা সেতু তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন। আজ এর উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের উপযুক্ত জবাব দিয়েছেন তিনি। পদ্মা সেতু বাঙালি জাতির জন্য গর্ব, আত্মমর্যাদা ও সক্ষমতার প্রতীক হয়ে থাকবে। পরিশেষে তিনি দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০২২ এর আয়োজন করার জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
উল্লেখ্য, আজকের বিতর্ক প্রতিযোগিতার বিষয় ছিল “এই সংসদ মনে করে, মূল্যবোধ সম্পন্ন ছাত্র সমাজই পারে আগামীর দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে”। এর পক্ষে সরকারি দল হিসেবে অংশগ্রহণ করে সোশ্যাল সাইন্স এন্ড হিউম্যানিটিস অনুষদের টিম গর্জন ৭১ এবং বিরোধী দল হিসেবে ছিল সায়েন্স অনুষদের টিম ফোর স্পার্টাকাস। বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে চ্যাম্পিয়ন হয় সোশ্যাল সাইন্স এন্ড হিউম্যানিটিস অনুষদ। পরে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এম. কামরুজ্জামান।

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here