হাওরাঞ্চলে পানি কমলেও দুর্ভোগ চরমে

0
25

(দিনাজপুর২৪.কম) সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চল শাল্লায় হাওর ও নদীর পানি কিছুটা কমলেও হাওরপাড়ের গ্রামগুলোতে জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে । গেল প্রায় ১৫ দিনের লাগাতার বৃষ্টি ও উজানের ঢলে নাভিশ্বাস অবস্থা চলছে হাওরের জনপদে। বেশ কিছু নতুন পাড়ায় হঠাৎ বন্যার পানি উঠেছে। কিছু কিছু এলাকায়  ভেজা ধান শুকাতে না পারায় ধান নিয়ে নানা ভোগান্তিতে রয়েছেন  উপজেলাবাসী।

উপজেলার  আনন্দপুর গ্রামের  বিকাশ চক্রবর্তী  বললেন, হঠাৎ করে একদিনে ৩/৪ ফুট পানি এসে চারদিকে বর্ষা হয়ে গেল। কিছু মানুষের ধান গবাদি পশুর খাবার খড় সহ পানিতে তলিয়ে যায়। এনিয়ে সাধারণ মানুষ দুর্ভোগে পরেছে। এখন পানি কমতে শুরু করেছে।  বন্যার পানি, এভাবে থাকলে পানিবাহিত রোগবালাই দেখা দিতে পারে বলে জানান।

শাল্লার   গণমাধ্যম কর্মী সিব্বির  আহমেদ জানালেন, পানি কমতে শুরু হলেও ভোগান্তি কমেনি।  রোববার একটু রোদ দেখা গেছে। এরকম কয়েকদিন রোদ দিলে মানুষের উপকার  হবে।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামছুদ্দোহা জানিয়েছেন, সুনামগঞ্জের নিম্নাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি আগামী দুদিন একই অবস্থায় থাকবে

নদীর পানির উচ্চতা কিছুটা কমে শনিবার বিকাল ৩ টায় বিপদসীমার এক সেন্টিমিটারর উপর দিয়ে যাচ্ছিল। ২৪ ঘণ্টায় চেরাপুঞ্জি-আসামে বৃষ্টি কম হয়েছে। সুনামগঞ্জে হয়েছে ৪৬ মিলিমিটার।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী বললেন, আগামীকাল আবহাওয়া একই ধরনের থাকবে। তবে ২৩, ২৪ ও ২৫ মে বৃষ্টি কমবে। এই তিনদিন উজানেও (মেঘালয়- চেরাপুঞ্জিতে) বৃষ্টি কম হবে।

প্রসঙ্গত, গেল প্রায় ১৫ দিন হয় সুনামগঞ্জে লাগাতার বৃষ্টি হচ্ছে। একইসঙ্গে উজানের ঢল নামায় জেলার সকল উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতি চলছে। আবহাওয়া ভাল হলে ২/৩ দিনের মধ্যে পরিবেশ ভাল হয়ে যাবে। -ডেস্ক রিপোর্ট

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here