হিজাব পরে বিদ্যালয়ে যেতে না দেওয়া ‘ভয়ংকর’: মালালা

0
83

(দিনাজপুর২৪.কম) ক্লাসে হিজাব পরার অধিকারের জন্য লড়াই করা ছয় ভারতীয় শিক্ষার্থীর সমর্থনে কথা বলেছেন নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী মালালা ইউসুফজাই। খবর বিবিসি।

হিজাব পরা নিয়ে কলেজে বাধা পাওয়ার কারণে কিশোরীরা কয়েক সপ্তাহ ধরে কর্ণাটক রাজ্যে প্রতিবাদ করছে। অধিকারে হস্তক্ষেপের এ ঘটনাকে মালালা ‘ভয়ংকর’ বলে বর্ণনা করেছেন।

‘কলেজ আমাদের পড়ালেখা এবং হিজাবের মধ্যে একটি বেছে নিতে বাধ্য করছে’— উদ্ধৃতির পর ২৪ বছর বয়সী অ্যাকটিভিস্ট টুইটারে বলেন, নারীদের হিজাব পরে স্কুলে যেতে দিতে অস্বীকার করা ভয়ংকর। ভারতীয় নেতাদের অবশ্যই মুসলিম নারীদের প্রান্তিককরণ বন্ধ করতে হবে।

কর্ণাটকের একটি কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের ইউনিফর্ম সংক্রান্ত কিছু বিধিনিষেধ জারি করে। তাতে বলা হয়, হিজাব পরে ক্লাস করা যাবে না। ওই সিদ্ধান্তের পর কয়েক সপ্তাহ ধরে কর্ণাটক রাজ্যে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের ইউনিফর্ম সংক্রান্ত এই বিতর্ক কর্ণাটক রাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে। ফলে স্কুল-কলেজ ৩ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা রয়েছে। বিষয়টি এখন রাজ্যের উচ্চ আদালতে পৌঁছেছে।

এ দিকে মঙ্গলবার কর্ণাটকের এক কলেজে গেরুয়া কাপড় হাতে পুরুষদের একটি বড় দলের সামনে দাঁড়িয়ে বোরকা ও হিজাব পরা এক ছাত্রী ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান দেন। তার এ অবস্থানকে সাহসী আখ্যা দিয়ে প্রশংসা করছেন অনেকে। বাংলাদেশেও ফেসবুকে তিনি দিনভর আলোচনায় রয়েছেন।

এক ভিডিওতে দেখা যায়, কর্ণাটকের পিইএস কলেজে হিজাব পরা শিক্ষার্থী বিবি মুশকান খান মোটরসাইকেলে প্রবেশ করে। তাকে দেখে গেরুয়া কাপড় উঁচিয়ে স্লোগান দেয় একদল ছাত্র। তারা ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে থাকেন। তাদের গালি দিতেও শোনা যায় বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়। কলেজ প্রশাসন মেয়েটিকে ওই দল থেকে দূরে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় মেয়েটি তাদের সামনেই মুষ্টিবদ্ধ হাত উঁচিয়ে ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান দিতে থাকেন।

এর আগে সোমবার কর্ণাটকের একটি সরকারি কলেজে দলিত সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীরা মুসলিম নারী শিক্ষার্থীদের হিজাব পরার অধিকারের পক্ষে নীল হিজাব পরে বিক্ষোভ করে। একই দিনে চিক্কামাগালুরুর আইডিএসজি কলেজে শিক্ষার্থীদের নীল ওড়না এবং গেরুয়া ওড়না পরা নিয়ে সংঘর্ষ হয়। হিজাবের বিরুদ্ধে যারা প্রতিবাদ করছে তারা গেরুয়া ওড়না পরে আসে। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here