১০০ নয় ৪ কোটি, কড়া জবাব দিলেন অনন্ত জলিল

0
83
চিত্রনায়ক অনন্ত জলিল। ছবি : ফেসবুক থেকে নেওয়া

(দিনাজপুর২৪.কম) গত কোরবানির ঈদে মুক্তিপ্রাপ্ত বিগ বাজেটের সিনেমা ‘দিন : দ্য ডে’। সফল চিত্রনায়ক-প্রযোজক অনন্ত জলিল ও বর্ষা অভিনীত সিনেমাটি মুক্তির পর থেকেই হলগুলোতে সগৌরবে চলছে। তবে এর মধ্যেই সিনেমাটি নিয়ে তৈরি হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা। প্রথমে সিনেমার ইরানি নির্মাতা মুস্তফা অতাশ জমজম ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে অনন্তের বিরুদ্ধে চুক্তিভঙ্গসহ নানা অভিযোগ তোলেন।

এরপর কথা উঠেছে, সিনেমার বাজেট নিয়ে। সম্প্রতি বাংলাদেশ-ইরান যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘দিন : দ্য ডে’র বাজেট ১০০ কোটি নয়, ৪ কোটি ৭৪ লাখ ৯৭ হাজার ৩৩০ টাকা। আর এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে এর চুক্তিপত্রের ছবিও। যা নিয়ে রীতিমত তর্ক-বিতর্ক হচ্ছে চলচ্চিত্রপাড়ায়। এতদিন বিষয়টি নিয়ে চুপ ছিলেন সফল ব্যবসায়ী ও অভিনেতা অনন্ত জলিল।

শুরুতেই অনন্ত জলিল বলেন, ‘কিছু মানুষের কাজ হচ্ছে অন্যদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো। তাই এই সিনেমা নিয়ে শুরু থেকেই তারা নানা ধরনের মিথ্যা আর বানোয়াট কথা রটিয়ে বেড়াচ্ছে। তাদের এসব কথায় আমার কাজ থেমে থাকবে না। আমি আমার মতো কাজ চালিয়ে যাবো।’

অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই সিনেমা নিয়ে ইরানি নির্মাতা মুস্তফা অতাশ জমজম প্রথমে মিথ্যা কথা ছড়িয়েছে। সে প্রথমেই আমাকে নিয়ে ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছে দেশের মানুষের কাছে। আমি ২০১৯ সাল থেকেই বলে আসছি, এই ছবির মূল ইনভেস্টার (বিনিয়োগকারী) ইরান আর বাংলাদেশের অংশের আমি। ওরা যদি ভুল রিপোর্ট মানুষের কাছে উপস্থাপন করে সিনেমার ব্যবসা নষ্ট করার চেষ্টা করে, তাহলে আর কি বলব। এই বিষয়গুলো ওই নির্মাতাই ভালো বলতে পারবেন, কেন সে এটা করেছে? আমি কিন্তু শুরু থেকেই বলে আসছি, আমি বাংলাদেশের অংশের ইনভেস্টার। কখনোই কিন্তু পুরো সিনেমার ইনভেস্টার হিসেবে নিজেকে দাবি করিনি। আমার এরকম একটা সাক্ষাৎকারও কেউ দেখাতে পারবেন না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি গরীবের ছেলে না, গরীব মানুষও না যে আরেক জনের টাকা আমার নিজের টাকা বলতে যাবো! বাংলাদেশের অংশে যদি আমার ৪ কোটি টাকা খরচ হয়, তাহলে বাকি সিনেমা কিসে তৈরি হয়েছে? সেখানে কি টাকা লাগেনি! সিনেমার প্রায় পুরো অংশের শুটিংই হয়েছে তুরস্ক আর আফগানিস্তানে। তাহলে সেটা কী ফ্রি বানানো হয়েছে। ও (নির্মাতা মুস্তফা অতাশ জমজম) মিডিয়াতে যে চুক্তিপত্রের কাগজ দেখিয়েছে, সেটা বাংলাদেশে আমার কাজের অংশটুকু। বাকি কাগজপত্রগুলো কই? পুরো সিনেমাটি কি হাওয়াতে হয়েছে।’

অনন্ত জলিল জানান, খুব শিগগিরই তিনি সব ভুল ধারণার অবসান ঘটাবেন। তার পক্ষের আইনজীবী এই বিষয়টি নিয়ে কাজ করছেন। তারা আজ-কালকের মধ্যেই আইনি আশ্রয়ে যাচ্ছেন। তখনই পুরো বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে। আর পুরো অভিযোগ যে মিথ্যা, তার প্রমাণসহ মিডিয়ার কাছে তুলে ধরা হবে।

এই চিত্রনায়ক বলেন, ‘বাংলাদেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি যার জন্য ঘুরে দাঁড়ালো, তাকে নিয়েই মানুষ অপপ্রচার চালাচ্ছে। এটা ভাবলে কষ্ট লাগে। আমার কোন প্রয়োজন ছিল না এই ইন্ডাস্ট্রিতে আসার। আমি চেয়েছি দেশের জন্য কিছু করতে, সিনেমার জন্য কিছু করতে- এটাই আমার অপরাধ। আর সে কারণে কোন জায়গার কোন নির্মাতা কি বলল, তা যাচাই না করেই সংবাদ মাধ্যমগুলো ভুল তথ্য প্রচার করে যাচ্ছে। হাতেগোনা কয়েকটা মিডিয়া ছাড়া কেউ আমরা সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেনি। মনগড়া সংবাদ প্রকাশ করে যাচ্ছে। যাই হোক, ক’দিনের মধ্যেই পুরো বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে। আর আমি হেরে যাওয়ার জন্য এই ইন্ডাস্ট্রিতে আসিনি। আমি আমার মতো করে কাজ চালিয়ে যাবো।’

উল্লেখ্য, গত ঈদুল আজহায় দেশের সিনেমা হলে মুক্তি পায় অনন্ত জলিল-বর্ষা অভিনীত সিনেমা ‘দিন : দ্য ডে’। এতে তাদের পাশাপাশি ইরান, আফগানিস্তান, তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশের শিল্পীরা অভিনয় করেছেন। -ডেস্ক রিপোর্ট

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here