২৭ লাখ টাকা নিয়ে উধাও দুই কর্মকর্তা

0
111

(দিনাজপুর২৪.কম) বগুড়ার ধুনট উপজেলায় আরডিআরএস বাংলাদেশ নামে একটি বেসরকারি সংস্থার প্রায় ২৭ লাখ টাকা নিয়ে শাখা ব্যবস্থাপকসহ দুই কর্মকর্তা উধাও হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ওই সংস্থার আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক (ক্ষুদ্র ঋণ) মিজানুর রহমান বাদী হয়ে দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছেন। গতকাল বুধবার রাতে ধুনট থানায় মামলাটি করা হয়।

আসামিরা হলেন আরডিআরএস বাংলাদেশের ধুনট শাখা ব্যবস্থাপক নজিবর রহমান (৪৩) ও একই শাখার ক্ষদ্রঋণ সংগঠক মেহেদী হাসান (২৭)।

নজিবর রহমান দিনাজপুরের বিরল উপজেলার পূর্ব মহেশপুর গ্রামের বাসিন্দা ও মেহেদী হাসান নওগাঁ সদরের চকরামচন্দ্রপুর গ্রামের বাসিন্দা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ধুনট-শেরপুর সড়কের হুকুম আলী বাসস্ট্যান্ড এলাকার একটি ভাড়া বাসায় ওই সংস্থার শাখা কার্যালয়ে চাকরি করতেন নজিবর রহমান ও মেহেদী হাসান। তারা স্থানীয় শতাধিক নারীর কাছ থেকে কৌশলে তাদের ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করেন। পরে এগুলো ব্যবহার এবং সই জালিয়াতি করে গোপনে তাদের সংস্থার সদস্য করা হয়। এরপর ওই দুই কর্মকর্তা ২০২১ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২০২২ সালের ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত ৮২ জন ভুয়া সদস্যের নামে সংস্থা থেকে ৩২ লাখ ১৫ হাজার টাকা উত্তোলন করেন।

সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের চোখ ফাঁকি দিতে কৌশলে ২০২২ সালের ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত সংস্থা থেকে নেওয়া ঋণের ৯ লাখ ৪৭ হাজার ৭০০ টাকা পরিশোধ করেন ওই দুই কর্মকর্তা। ঋণের অবশিষ্ট ২৬ লাখ ৯৩ হাজার ২৪৩ টাকা পরিশোধ না করে মেহেদী হাসান ১২ এপ্রিল এবং নজিবর রহমান ৮ মে থেকে কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। পরে সংস্থার অন্য কর্মকর্তারা ঋণের কিস্তির টাকা আদায় করতে সদস্যদের বাড়িতে যান। কিন্ত যাদের নামে ঋণ উত্তোলন করা হয়েছে তারা আদৌও ঋণের টাকা গ্রহণ করেননি বলে জানান।

পপি, বিলকিস ও জোসনা খাতুনসহ স্থানীয় কয়েকজন নারী জানান, সংস্থার সদস্য করার কথা বলে ওই দুই কর্মকর্তা তাদের কাছ থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র ও ছবি নেন। কিন্তু সংস্থা থেকে তারা কোনো ঋণ নেননি।

ওই দুই কর্মকর্তা আত্মগোপনে থাকায় এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, এ মামলার আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here