৪২ কোটির মুকুট মাথায়, আরও যেসব সুবিধা পাচ্ছেন হারনাজ

0
67
নতুন ‘মিস ইউনিভার্স’ হারনাজ সান্ধু। পুরোনো ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) দীর্ঘ ২১ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ‘মিস ইউনিভার্স’ হয়েছেন ভারতের চণ্ডীগড়ের তরুণী হারনাজ সান্ধু। ইসরায়েলের ইলাতে অনুষ্ঠিত মিস ইউনিভার্সের ৮১ প্রতিযোগীকে টপকে বিশ্বসেরা সুন্দরীর মুকুট নিজের করে নেন তিনি। যে মুকুটের দাম প্রায় পাঁচ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, বাংলাদেশের মুদ্রায় যা ৪২ কোটি টাকার বেশি। এটি বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে দামি মুকুট।

মুকুটের পাশাপাশি মিস ইউনিভার্স সংস্থা থেকে গোটা এক বছর ধরে নানান সুবিধা ভোগ করবেন হারনাজ। এক বছরের জন্য নিউইয়র্কে একটি পেন্টহাউসে থাকার সুযোগ পাচ্ছেন তিনি। মিস ইউনিভার্স সংস্থার প্রধান ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়ে বিশ্বভ্রমণ করতে পারবেন। মিস ইউনিভার্স হারনাজের ত্বক ও ডায়েটের জন্য বিশেষজ্ঞ, ব্যক্তিগত মেকআপ আর্টিস্ট থাকবে।

খাবার জিনিস থেকে পোশাক সবই পাবেন সংস্থার পক্ষ থেকে। সেখান থেকে তাকে মডেলিংয়ের জন্য একটি পোর্টফোলিও তৈরি করে দেওয়া হবে। এর জন্য রাখা হবে বিশ্বের সেরা ফটোগ্রাফারদের। ফ্যাশন স্টাইলিস্ট, ত্বক এবং দাঁতের পরিষেবাও বিনামূল্যে পাবেন এই ভারতীয় তরুণী।

প্রসঙ্গত, গত ১২ ডিসেম্বর রাতে ইসরাইলের এইলাটে ৭০তম মিস ইউনিভার্সের আসর অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্যারাগুয়ের নাদিয়া ফেরেইরা ও দক্ষিণ আফ্রিকার লালেলা এমএসওয়ানেকে পেছনে ফেলে সেরার মুকুট ছিনিয়ে নেন ২১ বছরের তরুণী হারনাজ।

২০১৭ সালে হারনাজ মডেলিং শুরু করেন। তিনি পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী। হারনাজ একাধারে হিন্দি, পাঞ্জাবি ও ইংরেজি ভাষায় দক্ষ। তিনি পাঞ্জাবি ভাষায় শের লিখতে ভালোবাসেন। হারনাজের মা গাইনি চিকিৎসক।

তার অনুপ্রেরণাই হারনাজকে সাফল্য এনে দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মায়ের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে হারনাজ লিখেছিলেন, ‘মা আমার স্বপ্নের নির্মাতা, সেই স্বপ্ন ছোঁয়ার অনুপ্রেরণাও তিনি।’

উল্লেখ্য, ইসরাইলের সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকায় ভ্রমণ জটিলতার কারণে এবারের আসরে বাংলাদেশ থেকে কারও অংশ নেওয়া হয়নি। -অনলাইন ডেস্ক

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here