সোমবার , ২৯ জানুয়ারি ২০২৪ | ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আইন আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও কৃষাণ
  6. ক্যাম্পাস
  7. ক্রিকেট
  8. গল্প-সাহিত্য
  9. চাকুরি
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. টালিউড
  13. টেনিস
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম ও ইসলাম

দিনাজপুরে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস

প্রতিবেদক
admin
জানুয়ারি ২৯, ২০২৪ ১২:৫৬ অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম) দিনাজপুরে গত দুইদিন ধরে বয়ে যাওয়া তীব্র শৈত্যপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।   সোমবার (২৯ জানুয়ারি-২০২৪) সকাল ৯টায় দিনাজপুর জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তীব্র শৈত্যপ্রবাহের কারণে কনকনে ঠান্ডায় মানুষের পাশাপাশি গবাদি পশু ও অন্যান্য প্রাণিরাও চরম দুর্ভোগে পড়েছে। তবে তীব্র শীতে গত দুইদিন থেকে সকাল ৯টার পর সূর্য ওঠায়  কিছুটা স্বস্তি পেয়েছে মানুষ।
দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়া সহকারী মোঃ আসাদুজ্জামান জানান, সোমবার সকাল ৯টায় দিনাজপুর জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৮৮ শতাংশ এবং গতিবেগ ঘণ্টায় সাড়ে ৩ থেকে ৪ কিলোমিটার। এর আগে গত ২৮ জানুয়ারী রবিবার দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৫ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯৬ শতাংশ এবং গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় সাড়ে ৫ থেকে ৬ কিলোমিটার।
আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ী, তাপমাত্রা ৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে সেটিকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ, ৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে মাঝারী শৈত্যপ্রবাহ ও ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে হলে সেটিকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বলা হয়। আর তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নামলে সেটিকে তীব্রতর শৈত্যপ্রবাহ বলে। সে হিসেব অনুযায়ী দিনাজপুর জেলায় গত দুই দিন ধরে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বিরাজমান রয়েছে।
দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়া সহকারী মোঃ আসাদুজ্জামান জানান, এই তাপমাত্রা ও শৈত্যপ্রবাহ আর তিন দিন স্থায়ী হতে পারে। এরপর থেকে তাপমাত্রা বাড়বে। দিনের তাপমাত্রা ও রাতের তাপমাত্রা বাড়বে। তবে আরও একটি শৈত্যপ্রবাহ আসতে পারে, তাছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিপাতেও আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান তিনি।

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস