রবিবার , ১০ মার্চ ২০২৪ | ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আইন আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. কৃষি ও কৃষাণ
  5. ক্যাম্পাস
  6. ক্রিকেট
  7. গল্প-সাহিত্য
  8. চাকুরি
  9. জাতীয়
  10. জেলার খবর
  11. টালিউড
  12. টেনিস
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. ধর্ম ও ইসলাম
  15. ফিচার

রমজান উপলক্ষে আজ থেকে মিলবে ৬০০ টাকা কেজিতে গরুর মাংস

প্রতিবেদক
admin
মার্চ ১০, ২০২৪ ৬:০৯ পূর্বাহ্ণ

(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম) পবিত্র রমজান উপলক্ষে রাজধানীতে ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে গরুর মাংস, মুরগি ও ডিম বিক্রি করবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। রাজধানীর ৩০ স্থানে ৬০০ টাকা কেজি দরে গরুর মাংস বিক্রি হবে। আজ রোববার (১০ মার্চ) থেকে শুরু হবে ট্রাক সে‌লের মাধ‌্যমে গরুর মাংস বিক্রি।

গত সোমবার (৪ মার্চ) ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনে খাদ্য ও মৎস্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে প্রশাসকদের অধিবেশন শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ ঘোষণা দিয়েছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী মো. আবদুর রহমান। তিনি জানান, ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৬০০ টাকা, খাসির মাংস ৯০০ টাকা, ড্রেসিং করা ব্রয়লার মুরগি ২৮০ টাকা এবং ডিম ১০ টাকা ৫০ পয়সা দরে বিক্রি হবে।

মো. আবদুর রহমান বলেন, রমজান মাসে আমরা কঠোরভাবে বাজার নিয়ন্ত্রণ করবো। এ ভ্রাম্যমাণ পণ্য বিক্রি কার্যক্রম রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করবে। তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরের ৩০টি স্পটে পণ্যগুলো বিক্রি করা হবে। এটা আমাদের একটি অন্তর্বর্তীকালীন ব্যবস্থা। আগামী ১০ মার্চ সেটা উদ্বোধন করা হবে। এটি ঈদের আগের দিন পর্যন্ত চলবে।

বিক্রয়ের সুবিধার্থে ৩০টি ডেজিগনেটেড স্পটে দুটি বিতরণ পদ্ধতি ব্যবহার করা হবে। পঁচিশটি মোবাইল ভ্যান গরুর মাংস, মুরগি, খাসি, দুধ ও ডিম বিক্রি করবে। এর বাইরে পাঁচটি ডেজিগনেটেড বাজারে শুধু গরুর মাংস বিক্রি হবে।

বিক্রয়কাজ সহজ করার জন্য দৈনিক পরিচালন খরচ বহন করবে সরকার। চালকের মজুরিসহ প্রতিটি ভ্যানের পেছনে দৈনিক প্রায় ১০ হাজার টাকা খরচ হবে।  আর খামারিরা সরবরাহ করবেন সবগুলো পণ্য। ওই পণ্য বিক্রি হওয়ার পর খামারিরা তাদের পণ্যের টাকা বুঝে নেবেন। প্রতিটি ভ্যানে যে দুজন মানুষ বিক্রয়কর্মী হিসেবে কাজ করবেন, তাদের দৈনিক ১ হাজার ৫০০ টাকা খামারিদের পক্ষ থেকে দেওয়া হবে।  সরকার আজ থেকে পণ্যগুলো বিক্রি শুরু করবে। ৫টি স্পটে শুধু গরুর মাংস বিক্রি করা হবে প্রথম রোজা থেকে। এখানে প্রতিটি স্পটে সার্বক্ষনিক মনিটরিং করবেন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

প্রতিদিন একেকটি ভ্যানে ১০০ কেজি গরুর মাংস, ৫০ কেজি ড্রেসড ব্রয়লার মুরগি, ১০ কেজি খাসি, ৪ হাজার ডিম ও ২০০ লিটার দুধ বিক্রি করা হবে।

৬০০ টাকার গরুর মাংসের পাশাপাশি ২৫০ টাকায় মুরগির মাংস, ১১০ টাকা ডজন ডিম, ৯০০ টাকা কেজি দরে খাসির মাংস এবং ৮০ টাকা লিটার হিসেবে বিক্রি হবে দুধ। শুরুতে মুরগির মাংস ২৮০ টাকায় বিক্রির ঘোষণা দেওয়া হলেও পরে সেটি কমিয়ে ২৫০ টাকা করা হয়েছে।  -নিউজ ডেস্ক

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস

আপনার জন্য নির্বাচিত