শুক্রবার , ৫ এপ্রিল ২০২৪ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আইন আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও কৃষাণ
  6. ক্যাম্পাস
  7. ক্রিকেট
  8. গল্প-সাহিত্য
  9. চাকুরি
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. টালিউড
  13. টেনিস
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম ও ইসলাম

চাঁদাবাজির সময় কিশোর গ্যাং চক্রের ৬ জন গ্রেফতার

প্রতিবেদক
admin
এপ্রিল ৫, ২০২৪ ৩:৩০ অপরাহ্ণ

(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম) চাঁদাবাজি করার সময় কিশোর গ্যাং চক্রের ৬ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১০। গ্রেফতারকৃতরা হলেন— আল আমিন (১৯), মুজাহিদ হোসেন ওরফে রনি (১৮), আব্দুর রহমান (২৩), মেহেদী হাসান ওরফে হৃদয় (১৮), আহাদুর রহমান ওরফে জয় (১৮) ও তানজিন হোসেন (১৮)। বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) রাজধানীর কদমতলী এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার (৫ এপ্রিল) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) ও সহকারী পুলিশ সুপার এম জে সোহেল।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা জানান, রাজধানী ঢাকার কদমতলীর পূর্ব জুরাইন এলাকায় বসবাসকারী সাজেদা বেগম (৪৫)। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সেই এলাকায় বসবাস করে আসছিলেন। সাজেদা তার বাড়ির ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে ভাড়া থেকে যে আয় আসতো তা দিয়ে জীবন চালাতেন। গত ২ নভেম্বর বিকেলে ১৩ থেকে ১৪ জন কিশোর গ্যাংয়ের সক্রিয় সদস্যরা সাজেদার বাড়িতে যান এবং তার কাছ থেকে নগদ ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এসময় তিনি চাঁদা দিতে অপারগতা এবং অস্বীকৃতি জানালে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা সাজেদাকে প্রাণনাশের হুমকিসহ বিভিন্ন প্রকার হুমকি দেন।

তিনি আরও জানান, দ্বিতীয় দফায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা পুনরায় সাজেদার বাসায় যান ও দাবিকৃত চাঁদা দেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। সাজেদা ও তার বাড়ির ভাড়াটিয়াসহ সবাইকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে তারা। সাজেদা কিশোর গ্যাংয়ের সদসদের চাঁদা দিতে অপারগতা এবং অস্বীকৃতি জানিয়ে তাদেরকে গালিগালাজ করতে নিষেধ করে। সেই সময় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা সাজেদাকে প্রাণনাশের হুমকিসহ বিভিন্ন প্রকার ক্ষতি সাধনের হুমকি দেয়। এরপর বিষয়টি র‍্যাব-১০ জানতে পেরে তাদেরকে কদমতলীর পূর্ব জুরাইন এলাকায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে। এই কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা যাবৎ রাজধানীর কদমতলীসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, পাড়া মহল্লায় আধিপত্য বিস্তারসহ বিভিন্ন প্রকার অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছিল। তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করতে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস