মঙ্গলবার , ২১ মে ২০২৪ | ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আইন আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও কৃষাণ
  6. ক্যাম্পাস
  7. ক্রিকেট
  8. গল্প-সাহিত্য
  9. চাকুরি
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. টালিউড
  13. টেনিস
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম ও ইসলাম

দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন যারা

প্রতিবেদক
admin
মে ২১, ২০২৪ ৮:৩৯ অপরাহ্ণ

(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম) ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে ১৫৬ উপজেলায় ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে মঙ্গলবার (২১ মে)। এদিন সকাল ৮টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। ভোট গণনা শেষে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বেসরকারি ফলাফল আসতে শুরু করেছে।

প্রথম ধাপের পর দ্বিতীয় ধাপেও ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। বিকেলে ব্রিফিংয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল জানিয়েছেন, ৩০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে। তবে প্রকৃত সংখ্যাটি আগামীকাল পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিএনপিসহ বড় কয়েকটি দল ভোট বর্জন করায় শুরু থেকেই উপজেলা নির্বাচন নিয়ে মানুষের আগ্রহ ছিল কম। ভোটেও সেটার প্রতিফলন লক্ষ্য করা গেছে। বেশির ভাগ স্থানে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে বেশ কিছু স্থানে বিএনপি নেতারাও নির্বাচন করছেন। তবে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দ্বিতীয় ধাপের ভোট চলাকালে বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ঘটলেও বড় কোনো সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি। ভোটগ্রহণ শেষে কক্সবাজারের ঈদগাঁওয়ে সহিংসতায় একজন মারা গেছেন। এছাড়া ভোট চলাকালে গরমে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। অনিয়ম ঠেকাতে শুরু থেকেই প্রশাসন তৎপর ছিল। তবে এর মধ্যে বিচ্ছিন্নভাবে কিছু অনিয়মের ঘটনাও ঘটেছে।

নারায়ণগঞ্জ: জেলার আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সাইফুল ইসলাম স্বপন ঘোড়া প্রতীক নিয়ে এক লাখ ১৫ হাজার ২৫২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আনারস প্রতীক নিয়ে কাজী সুজন ইকবাল পেয়েছেন এক হাজার ৯৯৭ ভোট।

ফরিদপুর: জেলার দুটি উপজেলায় আজ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে নগরকান্দা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহসম্পাদক কাজী শাহ জামান বাবুল। আর সালথা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান ওয়াদুদ মাতুব্বর বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

রাজশাহী: দ্বিতীয় ধাপে রাজশাহীর তিন উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলাগুলো হলো বাগমারা, পুঠিয়া ও দুর্গাপুর। বাগমারা উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাকিরুল ইসলাম সান্টু (ঘোড়া), পুঠিয়ায় জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সামাদ (আনারস) ও দুর্গাপুর উপজেলায় শরিফুজ্জামান শরীফ (মোটরসাইকেল) বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

রংপুর: রংপুরের দুটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। এর মধ্যে মিঠাপুকুরে ৭০ হাজার ৮৮২ ভোট পেয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য কামরুজ্জামান (হেলিকপ্টার) চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন। আর পীরগঞ্জে উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য নুর মোহাম্মদ মন্ডল (আনারস) চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন ৪৫ হাজার ৬৪০ ভোট পেয়ে। এনিয়ে তিনি তৃতীয় বারের মতো নির্বাচিত হলেন।

লালমনিরহাট: জেলার কালীগঞ্জ ও আদিতমারী উপজেলায় আজ ভোট হয়। এর মধ্যে আদিতমারী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ফারুক ইমরুল কায়েস ও কালীগঞ্জ উপজেলায় জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিবুজ্জামান আহমেদ বিজয়ী হয়েছেন।

নীলফামারী: বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত নেতা রিয়াদ আরফান সরকার (রানা) দোয়াত-কলম প্রতীকে ৩২ হাজার ৩৬৬ ভোট পেয়ে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

নওগাঁ: জেলার পোরশা, সাপাহা ও নিয়ামতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন শাহজাহান হোসেন মন্ডল (আনারস), মঞ্জুর মোর্শেদ চৌধুরী (কাপ পিরিচ) ও ফরিদ আহমেদ ( মোটরসাইকেল)।

দিনাজপুর: দ্বিতীয় ধাপে জেলার চারটি উপজেলায় ভোট হয়। সেগুলো হলো- বিরল, বোচাগঞ্জ, বীরগঞ্জ ও কাহারোল। এর মধ্যে বিরলে জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ও বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম মোস্তাফিজুর রহমান (আনারস), বোচাগঞ্জে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আফছার আলী (ঘোড়া), বীরগঞ্জে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবু হুসাইন বিপু (আনারস), কাহারোলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম ফারুক (দোয়াত-কলম) বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

ঠাকুরগাঁও: জেলার রানীশংকৈল উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আহমেদ হোসেন বিপ্লব ঘোড়া মার্কা ৪৪ হাজার ২৫৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শইদুল হক আনারস মার্কা পেয়েছেন ৩৪ হাজার ১৮০ ভোট ও আব্দুল কাদের মোটরসাইকেল ৩২ হাজার ২৩৫ ভোট।

বগুড়া: জেলার তিনটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। আদমদীঘি উপজেলায় পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খান রাজু। দুপচাঁচিয়ায় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আহম্মেদুর রহমান বিপ্লব মোটরসাইকেল প্রতীকে ৩৭ হাজার ৭৩২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আর

কাহালুতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আল হাসিবুল হাসান কবিরাজ সুরুজ পুনরায় আনারস প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছেন।

জয়পুরহাট: দুটি উপজেলায় ভোট হয়। এর মধ্যে সদর উপজেলায় মো. হাসানুজ্জামান মিঠু মোটরসাইকেল প্রতীকে ৪৪ হাজার ৪৭৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। আর পাঁচবিবি উপজেলায় বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন সাবেকুন নাহার। তিনি ঘোড়া প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৩৮ হাজার ৩৯টি।

পাবনা: জেলার ভাঙ্গুড়া ও ফরিদপুর উপজেলা নির্বাচনে নির্বাচিত হয়েছেন গোলাম হাসনায়েন রাসেল ও খলিলুর রহমান। বেসরকারি ফলাফলে ৪৫ কেন্দ্রের সম্পূর্ণ গণনায় রাসেল মোটরসাইকেল মার্কা প্রতীকে পেয়েছেন ৩১ হাজার ৫৫৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এম মেজবাহুর রহমান রোজ ঘোড়া মার্কা প্রতীকে পেয়েছেন ২ হাজার ৬৭৯ ভোট। অন্যদিকে, ফরিদপুর উপজেলা নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে ৪৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ৪০টির আংশিক ফলাফলে খলিলুর রহমান দোয়াত কলম মার্কা প্রতীকে পেয়েছেন ৯ হাজার৭৭৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আবুল কালাম আজাদ মোটরসাইকেল মার্কা প্রতীকে পেয়েছেন ৯ হাজার ৩০৭ ভোট।

সিরাজগঞ্জ: জেলার উল্লাপাড়া ও তাড়াশ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন সেলিনা মির্জা মুক্তি ও মনিরুজ্জামান মনি। মোটরসাইকেল প্রতীকে ৮৮ হাজার ১৯২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মুক্তি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নবী নেওয়াজ খান বিনু হেলিকপ্টার প্রতীকে পেয়েছেন ২১ হাজার ৮৬১ ভোট। অন্যদিকে, দোয়াত কলম প্রতীকে ৪০ হাজার ১৩১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের প্রার্থী সন্জিত কর্মকার পেয়েছেন ৩৫,৬২৭ ভোট।

কক্সবাজার: জেলার চকরিয়া, পেকুয়া ও ঈদগাঁও উপজেলায় মঙ্গলবার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। চকরিয়ায় বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল করিম সাঈদী দোয়াত-কলম প্রতীকে ৫৬ হাজার ১২২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী জাফর আলম পেয়েছেন ৫২ হাজার ২৫২ ভোট। পেকুয়ায় দুইবারের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাফায়েত আজিজ রাজু ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২৩ হাজার ২৯৩ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রুমানা আকতার আনাসর প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৬ হাজার ৫৩৪ ভোট। আর নবগঠিত ঈদগাঁওয়ে

উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও ঈদগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু তালেব চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি টেলিফোন প্রতীকে পেয়েছেন ১৬ হাজার ৯৫৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সামসুল আলম মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ১২ হাজার ৯০৭ ভোট।

কুমিল্লা: জেলার দুটি উপজেলায় নির্বাচন হয়। উপজেলা দুটি হলো সদর দক্ষিণ ও বরুড়া। সদর দক্ষিণে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাবলু। আর বরুড়ায় প্রথমবারের মতো আনারস প্রতীক নিয়ে হামিদ লতিফ ভূঁইয়া বিজয়ী হয়েছেন। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের শ্যালক বলে জানা গেছে।

নোয়াখালী: নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন বেঙ্গল গ্রুপ ও আরটিভির পরিচালক সাইফুল আলম দিপু। আনারস প্রতীকে সাইফুল আলম দিপু ৩২ হাজার ১৩২ পেয়ে বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সেনবাগ পৌরসভার সাবেক মেয়র আবু জাফর টিপু পেয়েছেন ১৪

হাজার ৭৩৪ ভোট।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: জেলার দুটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ হয়। এর মধ্যে কসবায় ছাইদুর রহমান স্বপন এবং আখাউড়ায় মনির হোসেন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। ছাইদুর রহমান স্বপন আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের ফুফাতো ভাই ও কুটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক। আর মনির হোসেন আখাউড়া উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক।

বান্দরবান: জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মোটরসাইকেল প্রতীকে ১৫ হাজার ১৯৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন তোফাইল আহামদ। আর লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বেসরকারি ফলাফলে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. মোস্তফা জামাল দ্বিতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন।

রাঙ্গামাটি: দ্বিতীয় ধাপে পার্বত্য এই জেলার তিনটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে কাপ্তাই উপজেলায় মো. নাসির উদ্দিন, রাজস্থলী উপজেলায় উবাচ মারমা এবং বিলাইছড়ি উপজেলায় বিরোত্তম তঞ্চঙ্গ্যা বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

কুষ্টিয়া: জেলার চারটি উপজেলায় আজ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে কুমারখালী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান খান আবারো বিজয়ী হয়েছেন। মিরপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম বিজয়ী হয়েছেন। দৌলতপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে

উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরী বিজয়ী হয়েছেন। আর ভেড়ামারা উপজেলায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ভেড়ামারা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামাল মুকুল।

মে‌হেরপুর: জেলার গাংনী উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন এম এ খা‌লেক। আনারস প্রতীকে ২৮ হাজার ৩৭৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোখ‌লেছুর রহমান মুকুল হে‌লিকপ্টার প্রতীকে ৩৯ হাজার ৪২২ ভোট পেয়েছেন।

যশোর: যশোরের চৌগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান। আনারস প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৫৬৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ড. মোস্তানিছুর রহমান পেয়ছেন ২৮ হাজার ৯৮০ ভোট।

মাগুরা: জেলার দুটি উপজেলা

পরিষদে ভোট হয়। এর মধ্যে মহম্মদপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল মান্নান এবং শালিখা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট শ্যামল কুমার দে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

চুয়াডাঙ্গা: জেলার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার। ঘোড়া প্রতীকে ৫০ হাজার ৭৬১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আজিজুল ইসলাম মোটরসাইকেল প্রতীকে ৩৪ হাজার ৮৩৩ ভোট পেয়েছেন। আলমডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন কে এম মঞ্জিলুর রহমান। মোটরসাইকেল প্রতীকে ৪০ হাজার ২৮০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জিল্লুর রহমান ঘোড়া প্রতীকে ২৬ হাজার ২৮৭ ভোট পেয়েছেন।

বাগেরহাট: জেলার ফকিরহাট, মোল্লাহাট ও চিতলমারী উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ফকিরহাট উপজেলায় শেখ ওহিদুজ্জামান বাবু, চিতলমারী উপজেলা আলমগীর

হোসেন সিদ্দিকী এবং মোল্লাহাট উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহিনুর আলম ছানা বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

চাঁদপুর: জেলার তিনটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা অ্যাডভোকেট হুমায়ন কবির সুমন। হাজীগঞ্জ উপজেলায় বিজয়ী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ হেলালউদ্দিন। আর শাহরাস্তিতে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মুকবুল হোসেন।

ভোলা: জেলার সদর, বোরহানউদ্দিন ও দৌলতখান উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদ ইউনুছ (মোটরসাইকেল- ৩৩,১৫৫ ভোট), মোঃ জাফর উল্লাহ (আনারস- ২৯৭১৬ ভোট) ও মনজুর আলম খান (কাপপিরিচ- ১৩৭৩৫ ভোট)।

ঝালকাঠি: জেলা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আনারস প্রতীকে ৩৩ হাজার ৯৪৩ ভোট পেয়ে খান আরিফুর রহমান বিজয়ী হয়েছেন। নলছিটি উপজেলায় সালাহউদ্দিন খান সেলিম বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাডভোকেট জিকে মোস্তাফিজুর রহমান।

পিরোজপুর: পিরোজপুরে দুটি উপজেলায় নির্বাচন হয়। এর মধ্যে নেছারাবাদ উপজেলায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল হক আনারস প্রতীক নিয়ে ৩৮ হাজার ৬১২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। আর কাউখালি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী মো. আবু সাঈদ মিঞা ১১ হাজার ২৮৪ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

ময়মনসিংহ: জেলার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নির্বাচিত হয়েছেন আবু সাঈদ। দোয়াত কলম প্রতীকে ৪৫ হাজার ৭১৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন ঘোড়া প্রতীকে ৪০ হাজার ৫৫৭ ভোট পেয়েছেন।

নেত্রকোণা: জেলার পূর্বধলা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন এটিএম ফয়জুর সিরাজ জুয়েল। মোটরসাইকেল প্রতীকে ৩৯ হাজার ৩১০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আসাদুজ্জামান নয়ন দোয়াত কলম প্রতীকে ২৮ হাজার ৭৭৬ ভোট পেয়েছেন।

সিলেট: জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মজির উদ্দিন। আনারস প্রতীকে ২৮ হাজার ৭১৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শামীম আহমদ মোটরসাইকেল প্রতীকে ২১ হাজার ৯১১ ভোট পেয়েছেন। জেলার জৈন্তাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আনারস প্রতীকধারী লিয়াকত আলী। তিনি ৩৭ হাজার ৫ ভোট পেয়েছেন। তার তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কাপ পিরিচ প্রতীকের আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরী পেয়েছেন ২৩ হাজার ৯৫৬ ভোট। গোয়াইনঘাট উপজেলায় ঘোড়া প্রতীকধারী শাহ আলম স্বপন

৪৫ হাজার ৬৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটমতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোটরসাইকেল প্রতীকধারী বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফারুক আহমদ পেয়েছেন ২৬ হাজার ৭৭০ ভোট।

সুনামগঞ্জ: জেলার চারটি উপজেলায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা বিজয়ী হয়েছেন। তাহিরপুরে যুবলীগ নেতা আফতাব উদ্দিন আনারস প্রতীকে ৩৬ হাজার ৫১৫ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। জামালগঞ্জে ২৯ হাজার ১১১ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম শামীম। ধর্মপাশায় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা শামীম আহমদ মুরাদ ১৮ হাজার ৮৮৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আর বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম তালুকদার। -নিউজ ডেস্ক

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস