বুধবার , ১২ জুন ২০২৪ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আইন আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও কৃষাণ
  6. ক্যাম্পাস
  7. ক্রিকেট
  8. গল্প-সাহিত্য
  9. চাকুরি
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. টালিউড
  13. টেনিস
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম ও ইসলাম

কন্দাল ফসল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৩ দিন ব্যাপি কৃষি মেলার পুরুষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত

প্রতিবেদক
admin
জুন ১২, ২০২৪ ৪:৩২ অপরাহ্ণ

জন অমৃত লিটন মন্ডল (দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম)  মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের আয়োজনে কন্দাল ফসল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৩ দিন ব্যাপি কৃষি মেলার সমাপনি দিবসে মেলায় অংশ গ্রহনকারি কৃষকদের মাঝে পুরুষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। গত ১০ জুন হতে শুরু হয়ে ১২ জুন/২৪ পর্যন্ত তিন দিন ব্যাপি কৃষি মেলার আজ শেষ দিন। আজ বিকেল ৪ ঘটিকার সময় সমাপনি দিবসে এই পুরুষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠান হয়। কৃষি মেলায় মুজিবনগর উপজেলার মোট ৫০ জন কৃষক অংশ গ্রহন করেন। ৫০ জন কৃষকের মধ্যে যাচায় বাছায় করে তিন জন কৃষককে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান নির্ধারন করে পুরষ্কৃত করেন। উপজেলা কৃষি অফিসার জনাব মোহাম্মদ আব্দুল মমিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত কৃষিবিদ বিজয় কৃষ্ণ হালদার উপ-পরিচালক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর মেহেরপুর। বিশেষ অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিল ডিপ্লোমা কৃষিবিদ মিজানুর রহমান মিজান। কৃষি মেলায় প্রথম স্থান অধিকার করেন ভবেরপাড়া গ্রামের মুন্সি মোকলেছুর রহমান (লিটন মুন্সি) অ্যাভোকাডো, মিয়াজাকি আম, বিলাতি গাব, নুনী ফল, তিন ফল, ইরানি বেল, মাধবী পেয়ারা, কাজুবাদাম, আমেরিকান চেরি ফলের উপর। দ্বিতীয় স্থানে পুরুষ্কার পেয়েছেন বাগোয়ান গ্রামের কৃষক জনাব আইনুর রহমান বিভিন্ন শাক সবজির উপর। বিভিন্ন ফলের। তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছেন জয়পুর গ্রামের কৃষক জনাব মঞ্জুর ইসলাম তরমুজের উপরে। প্রথম পুরুষ্কার বিজয়ি জনাব মুন্সি মোকলেছুর রহমানের পক্ষে পুরুষ্কার গ্রহন করেন তিনার ভাই মুন্সি উমর ফারুক প্রিন্স। মুন্সি উমর ফারুক প্রিন্স এক সাক্ষাতকারে বলেন আমার ভাই প্রধানমন্ত্রির নির্দেশ কোন খালী জমি ফেলে না রেখে বিভিন্ন ধরনের ফল ফুল সবজি চাষ করুন এই নির্দেশের আলোকে মুন্সি মোকলেছুর রহমান (লিটন মুনশি) উদ্বুদ্ধ হয়ে খালি জমিতে বিভিন্ন ধরনের প্রায় ৩০০ প্রজাতির ফল ফুল, ঔষধি গাছ, বনজ গাছ মসলা গাছ রোপন করেন। একদিকে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা হলো এবং অপর দিকে সাধারণ মানুষের ভেতরে অনুপ্রেরণার জন্যও এই উদ্যোগ নেন।

সর্বশেষ - ক্যাম্পাস