বৃহস্পতিবার , ১৬ মে ২০২৪ | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. আইন আদালত
  3. আর্ন্তজাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও কৃষাণ
  6. ক্যাম্পাস
  7. ক্রিকেট
  8. গল্প-সাহিত্য
  9. চাকুরি
  10. জাতীয়
  11. জেলার খবর
  12. টালিউড
  13. টেনিস
  14. তথ্য-প্রযুক্তি
  15. ধর্ম ও ইসলাম

আমরা অনেক ভালো ক্রিকেট খেলব : শান্ত

প্রতিবেদক
admin
মে ১৬, ২০২৪ ৯:৪১ পূর্বাহ্ণ

(দিনাজপুর টোয়েন্টিফোর ডটকম) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনও সপ্তাহ দুয়েকের অপেক্ষা। তবুও যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে গত রাতেই (দেড়টার ফ্লাইটে) দেশ ত্যাগ করেছে টিম বাংলাদেশ। কেননা বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে স্বাগতিকদের সঙ্গে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলবে তারা। যুক্তরাষ্ট্র অপেক্ষাকৃত দুর্বল প্রতিপক্ষ হলেও তাদের বিপক্ষে খেলে ভালো প্রস্তুতি হবে বলেই বিশ্বাস টাইগারদের। বিশ্বকাপেও দল অনেক ভালো ক্রিকেট খেলবে বলেই আশা অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তর, যদিও গ্রুপে দক্ষিণ আফ্রিকা আর শ্রীলঙ্কার মতো শক্তিধর প্রতিপক্ষ আছে। তবে নিজেদের সেরাটা দিতে পারলে বিশ্বকাপে কোনো দলই প্রতিবন্ধকতা হতে পারবে না বলেই বিশ্বাস তার, দেশ ছাড়ার আগে বুধবার এমন আশাবাদই ব্যক্ত করেছেন অধিনায়ক। আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেছেন প্রাসঙ্গিক আরও কিছু বিষয়ে-
দল নির্বাচন নিয়ে ইনপুট
দল নির্বাচনের বিষয়টা নিয়ে আমরা অনেক আগে থেকেই আলোচনা করছিলাম, তিন নির্বাচক এবং কোচ। শুধু জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে যে শুরু হয়েছে, তা নয়। এর আগে থেকেই আমাদের মধ্যে কথাবার্তা চলত, আমরা কোন কম্বিনেশনে যাব। ইনপুট যদি বলেন, আমরা সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং প্রত্যেকটা মিটিংয়ে আমি ছিলাম, কোচ ছিলেন, পাশাপাশি তিন নির্বাচক তো ছিলেনই। আমাদের সবার সম্মিলিত সিদ্ধান্ত এটা।
সাইফউদ্দিন আউট তানজিম ইন 
সাইফউদ্দিন এবং (তানজিম) সাকিবের ক্ষেত্রে এলে; সাকিবের বলের পেসটা সাইফউদ্দিনের চেয়ে একটু বেশি। সাইফউদ্দিনের কাছ থেকে আমরা যা আশা করছিলাম, সেখানে মনে হয় একটু কমবেশি ছিল। একদম বিস্তারিত বলতে চাই না। দুজনই খুব কাছাকাছি ছিল। সাকিবের ওপর আমাদের আত্মবিশ্বাস কিছুটা বেশি ছিল। কন্ডিশন বিবেচনা করে সবমিলে আমাদের মনে হয়েছে সাকিব বেটার অপশন হবে।

ফর্মহীন লিটনের টিকে যাওয়া
লিটন আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। যদিও কয়েকটা সিরিজ ভালো যায়নি। এমনটা হতেই পারে। শেষ মুহূর্তে আমরা কেউই চাইনি নতুন একটা প্লেয়ার দলে চলে আসুক। এরকম বড় টুর্নামেন্টের আগে তার জন্য হয়তো কঠিন হবে। এ জন্য আমরা অভিজ্ঞতাকে সেখানে মূল্য দিয়েছি। আমি আশা করি লিটন ভালো করবে ইনশাল্লাহ।
দল নিয়ে প্রত্যাশা
আমি যে কথাটা বলেছিলাম, তারপরও বাংলাদেশের সবাই প্রত্যাশা করবেই। আমি নিজেও প্রত্যাশা করি এবং আমাদের প্রত্যেকটা প্লেয়ার প্রত্যাশা করবে যে আমরা অনেক ভালো ক্রিকেট খেলব। আমরা যদি ছোট ছোট পরিকল্পনা নিয়ে আগাই; আমরা কীভাবে গ্রুপপর্বটা পার করব, তা হলে পরিকল্পনা করাটা সহজ হয়। আমরা যে গ্রুপে আছি, খুব একটা যে দুর্বল গ্রুপ তা বলব না। আমরা যদি এটা পার করতে পারি তখন আবার আমরা আলাদাভাবে পরিকল্পনা করতে পারব। টি-টোয়েন্টিতে আমি বিশ্বাস করি ছোট দল বড় দল বলে কিছু নেই। নির্দিষ্ট দিনে যদি আমরা ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি তা হলে যেকোনো দলকে হারানো সম্ভব।
এবার যে কোনো কিছু হবে কি না
আশা তো করছি। নির্দিষ্ট দিনে সবার দায়িত্ব পালন করাটা জরুরি। আমি আশা করি সবাই সবার জায়গা থেকে তা করবে। আমার যেসব জায়গায় কাজ করার দরকার সেগুলো আমি করছি। আশা করি আমি ভালোভাবেই কামব্যাক করব বিশ্বকাপে।
তাসকিনের চোট-শঙ্কা
আমরা এমন আশা করছি না, তাসকিন থাকবে না। আমরা আশা করছি তাসকিন সুস্থ হয়ে যাবে, প্রথম ম্যাচ থেকেই তৈরি থাকবে। আমাদের দলের অন্যতম সেরা বোলার এবং মেইন বোলার আমি বলব। না থাকতে পারলে আমাদের যে ব্যাকআপ অপশন আছে, তা নিয়ে আগাতে হবে। আমার মনে হয় সে (তাসকিন) প্রথম ম্যাচ থেকেই খেলতে পারবে।
ব্যাকআপ অপশন কি পর্যাপ্ত
ব্যাকআপ নিয়ে এখন চিন্তা না করে আসলে সবাই যেন প্রস্তুত থাকে এবং সে অনুযায়ী পরিকল্পনা করা হয়েছে। হাসান মাহমুদ দলের সঙ্গে যাবে, সে যেন প্রস্তুত থাকে।
লেগস্পিনার রিশাদের উপস্থিতি 
আলহামদুলিল্লাহ, খুব ভালো একজন লেগস্পিনার আছে আমাদের দলে। সে প্রায় সব ম্যাচেই পারফর্ম করছে, বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটিংয়েও। সে অন্যতম সেরা ফিল্ডার আমাদের দলের। কমপ্লিট একটা প্যাকেজ। সেরাটা দিতে পারলে দল অনেক আগাবে। বাড়তি কোনো চাপ দিতে চাচ্ছি না, সে যা করতে পারে তা করতে পারলে দলের জন্য ভালো কিছু হবে। নির্বাচকরা দল করার সময় ব্যাকআপ অপশন রাখেন। আল্লাহ না করুক যদি ওর খুব খারাপ যায়, তা হলে হয়তো ব্যাকআপ অপশনের কথা চিন্তা করতে হবে।
মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পারফরম্যান্স
রিয়াদ ভাই যেভাবে কামব্যাক করল, ওনার যে রোলটা আছে এর ফলে দল অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। ফিনিশিং রোলে এটা আমাদের জন্য বাড়তি সুযোগ যে আমরা ভালো একটা স্কোর দাঁড় করাব। তরুণদের জন্য অবশ্যই অনুপ্রেরণা যে কীভাবে এরকম পরিস্থিতি থেকে কামব্যাক করা যায়।
মাহমুদউল্লাহ-সাকিবের শেষ বিশ্বকাপ
শেষ বিশ্বকাপ কি না জানি না। আমরা অবশ্যই চাইব তাদের ভালো একটা স্মৃতি দিতে। অবশ্যই এটা আমাদের দায়িত্ব। ওনাদের যে রোলটা আছে, ওনারা যদি তা করতে পারে অবশ্যই দল উপকৃত হবে। ওনাদের অভিজ্ঞতা যা আছে তা যদি প্রত্যেকটা প্লেয়ারের মধ্যে ছড়িয়ে দেন, তা হলে আমরা অনেক ভালো অবস্থানে থাকব।
বোলিং বিভাগ নিয়ে প্রত্যাশা
আমাদের বোলিং বিভাগ আগের থেকে অনেক উন্নত হয়েছে। টি-টোয়েন্টিতে আমি মনে করি, যদি বোলাররা ভালো করে জেতার সম্ভাবনা থাকে বেশি। টি-টোয়েন্টিতে আমি মনে করি বোলাররাই বেশি ম্যাচ জেতায়। ওয়েস্ট ইন্ডিজে উইকেট আশা করি স্পিন সহায়ক হবে। স্পিনে আমাদের ভালো বৈচিত্র্য আছে।
ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ 
একটা ভালো প্রস্তুতি ম্যাচ হবে। কন্ডিশন সম্পর্কে ধারণা পাব। ওইটাই আমাদের কাজে দেবে যখন আমরা মূল রাউন্ডে ম্যাচ খেলব।
স্কোর বোর্ডে ২০০ রান তোলা
একদিনেই আমরা তো ২০০ করার প্ল্যানে ব্যাট করতে পারব না। আমাদের যে শক্তি আছে… নিউজ ডেস্ক

সর্বশেষ - আইন আদালত